Tuhina Khatun: অপরাধীরা এখনও ধরা পড়েনি কেন! বিচারকের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে তদন্তকারী অফিসার

চার্জশিটে কাউন্সিলর সহ যে ৯ জন ধরা পড়েনি তাদেরকে পলাতক দেখানো হয়েছে। যদিও স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, ঐ 'পলাতক'দের কাউন্সিলরের সাথে ঘুরতে দেখা গেছে।
Tuhina Khatun: অপরাধীরা এখনও ধরা পড়েনি কেন! বিচারকের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে তদন্তকারী অফিসার
ফাইল চিত্র -

দু-মাস পর বর্ধমানের কলেজ ছাত্রী তুহিনা খাতুনের আত্মহত্যার ঘটনায় আদালতে চার্জশিট পেশ করল বর্ধমান জেলার পুলিশ। গত মার্চ মাসে পুরোভোটের ফল প্রকাশের পর আত্মঘাতী হয় ঐ তরুণী। ঘটনাটি ঘটে বর্ধমান জেলার বাবুরবাগ এলাকায়। ঘটনায় নাম জড়ায় ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর বসির আহমেদের নাম। বৃহস্পতিবার বসির আহমেদ সহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করল পুলিশ।

এই চার্জশিটের মধ্যে তুহিনার প্রেমিক শেখ সহেলের নামও যোগ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ৩০৫, ৩১৩, ৩৭৬(২) ও পকসো আইনের ৬ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। বাকিদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ১৪৭, ১৪৯, ৪৪৭, ৩২৩, ৩০৫, ৩৫৪, ৫০৬, ৫০৯ ও পকসো অ্যাক্টের ৮ ও ১২ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে।

সূত্রের খবর, ঐ তরুণীর প্রেমিকের নাম পুলিশ সাজিয়ে যোগ করেছে বলে এমনটাই শোনা যাচ্ছে। চার্জশিটে কাউন্সিলর সহ যে ৯ জন ধরা পড়েনি তাদেরকে পলাতক দেখানো হয়েছে। যদিও স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, ঐ 'পলাতক'দের কাউন্সিলরের সাথে ঘুরতে দেখা গেছে। শাসকদলের ছত্রছায়ায় থাকার কারণে পুলিশ কোনো পদক্ষেপ করছে না।

Tuhina Khatun: অপরাধীরা এখনও ধরা পড়েনি কেন! বিচারকের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে তদন্তকারী অফিসার
'বোন ঝুলছে, আর বাদশার গুন্ডারা আমাদের চুলের মুঠি ধরে মারছে' - কান্নায় ভেঙে পড়ছেন তুহিনার বোনেরা

বাদশা, শেখ গোলাম নবি, তহমিনা বিবি, মানোয়ারা বিবি, শেখ রাজা, শেখ তুফান এদের নাম থাকলেও অনেকেই অধরা রয়েছে। এই বিষয়ে তদন্তকারী অফিসারকে কার্যত ভর্ৎসনা করলেন বিচারক। তদন্তকারী অফিসার জানান, পলাতকদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। অভিযুক্তরা খুব শীঘ্র ধরা পড়বে বলে তিনি আশ্বাস দেন।

পুলিশ চার্জশিটে জানায়, গত মার্চ মাসে পুরোভোটে জেতার পর থেকেই ঐ তরুণীকে অশ্লীল কটুক্তি করা হয়। পরিবারের দাবি তুহিনা মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। এইসব কারণেই আত্মঘাতী হয় তুহিনা। চার্জশিটে প্রেমের তথ্য উল্লেখ করা আছে। বিরোধীদের দাবি স্থানীয় তৃণমূল নেতাকে বাঁচাতেই পুলিশ প্রেমিকের নাম যুক্ত করেছে। কারণ মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে প্রেমিকের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ করা হয়নি। এফআইআর এর কপিতেও প্রেমের বিষয়ে কোনো উল্লেখ নেই।

Tuhina Khatun: অপরাধীরা এখনও ধরা পড়েনি কেন! বিচারকের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে তদন্তকারী অফিসার
Tuhina Khatun Case: গোপনে শপথ নিয়েছেন তুহিনা আত্মহত্যাকান্ডে প্রধান অভিযুক্ত বাদশা!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.