TMC: দলের গাইডলাইন ভাঙার অভিযোগ, সৌগত রায়কে তলব করতে চলেছে তৃণমূলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি

কিছুদিন আগেই সৌগত রায় বলে ছিলেন, ‘রেল কলোনির আন্দোলন বা নকশাল আমলেও এই ধরনের ঘটনা ঘটেনি।’ সিন্ডিকেট সমস্যা বলে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘‌বখরা নিয়ে সমস্যার জেরেই এই সংঘর্ষ।’‌
TMC: দলের গাইডলাইন ভাঙার অভিযোগ, সৌগত রায়কে তলব করতে চলেছে তৃণমূলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি
সৌগত রায়ফাইল চিত্র - সংগৃহীত

এবার প্রবীণ তৃণমূল নেতা সৌগত রায়কে তৃণমূলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি তলব করতে চলেছে। তাঁর সাম্প্রতিক মন্তব্যের জেরে রাজ্য–রাজনীতিতে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে, তার জন্যই এই পদক্ষেপ বলে সূত্রের খবর। জানা গিয়েছে, এই ধরনের মন্তব্যের জন্য দমদমের সাংসদকে আগেও সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু তাতে কাজ না হওয়ায় দল তলব করতে চলেছে। প্রসঙ্গত, ঠিক একই পদক্ষেপ করা হয় মদন মিত্রর ক্ষেত্রেও।

তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রের খবর, একের পর এক আলটপকা, বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন সৌগত রায়। তার ফল ভুগতে হয়েছে দলকে। তাই তাঁকে আগাম সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু তারপরও তিনি একই পথে হেঁটেছেন। দলের গাইডলাইন ভেঙেছেন। না মানলে জবাবদিহি সবাইকেই করতে হয়। ওনাকেও করতে হবে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই তাঁর কাছে দলীয় বার্তা যাবে। আর এভাবে দলে আরও একবার শৃংখলারক্ষার বার্তা দেওয়া হল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি দক্ষিণেশ্বরে থানা উদ্বোধন করতে গিয়ে সৌগত রায় বলেছিলেন, ‘যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা, সেই রাজ্যে একটি ধর্ষণের ঘটনাও লজ্জার।’ গতকাল লেক গার্ডেন্সে দু’টি গোষ্ঠীর মধ্যে বচসা থেকে হাতাহাতি শুরু হয়। ঘটনার সময় বাড়িতেই ছিলেন সৌগত রায়। তিনি বেরিয়ে ফোনে পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে বলেন।

সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘রেল কলোনির আন্দোলন বা নকশাল আমলেও এই ধরনের ঘটনা ঘটেনি।’ সিন্ডিকেট সমস্যা বলে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘‌বখরা নিয়ে সমস্যার জেরেই এই সংঘর্ষ।’‌

এই নিয়ে ভবানীপুরের প্রিয়নাথ মল্লিক রোডের অফিসে বৈঠক করেন রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী, মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, লোকসভার দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এবং বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। সেই বৈঠকেই দমদমের সাংসদকে তলব করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সৌগত রায়
TMC: মহিলা মুখ্যমন্ত্রীর রাজ্যে একটিও ধর্ষণ লজ্জার - সৌগত রায়ের বিস্ফোরক মন্তব্যে অস্বস্তিতে তৃণমূল

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.