'এবার মাওবাদীরা খেলবে TMC নেতাদের সঙ্গে' - সারেঙ্গায় মাওবাদী পোস্টার, আতঙ্কে কাঁপছে শাসক দল

সারেঙ্গা থানার গোয়ালবাড়ি অঞ্চলের আঁধারিয়া এলাকায় স্থানীয়রা মাওবাদী পোস্টার দেখেন। একটি পোস্টারে লেখা ছিল, 'আমাদের নেতা কিষেণজির মৃত্যুর বদলা চাই। ...তোমাদের সময় শেষ হয়ে গিয়েছে।'
'এবার মাওবাদীরা খেলবে TMC নেতাদের সঙ্গে' - সারেঙ্গায় মাওবাদী পোস্টার, আতঙ্কে কাঁপছে শাসক দল
মাও পোস্টার (বামে)ছবি - সংগৃহীত

ফের মাওবাদী পোস্টার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। এবার গোয়ালতোড় লাগোয়া বাঁকুড়ার (Bankura) সারেঙ্গা এলাকায়। মঙ্গলবার সকালে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে বাঁকুড়ার সারেঙ্গায়।

জানা গিয়েছে, এদিন সারেঙ্গা থানার গোয়ালবাড়ি অঞ্চলের আঁধারিয়া এলাকায় স্থানীয়রা মাওবাদী পোস্টার দেখেন। একটি পোস্টারে লেখা ছিল, 'আমাদের নেতা কিষেণজির মৃত্যুর বদলা চাই। বর্তমান সরকারের কর্মচারিরা যেসব দুর্নীতি করে চলেছে তাঁদের বলছি, তোমাদের সময় শেষ হয়ে গিয়েছে। বলহরি, হরিবল।'

কোনওটাতে লেখা, 'খেলা হবে, খেলা হবে। এবার তো আমরা খেলব TMC নেতাদের সঙ্গে। বলহরি, হরিবল।' সাদা কাগজের উপর লালকালিতে লেখা এই পোস্টারের প্রেরকের জায়গায় লেখা, 'CPI (মাওবাদী)।'

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পোস্টার উদ্ধার করেছে। এ বিষয়ে জেলা পুলিশের আধিকারিক জানিয়েছেন, 'মাওবাদীদের নামাঙ্কিত পোস্টার উদ্ধার হয়েছে। কে বা কারা দিয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।'

২০১১ সালে রাজ্যে রাজনৈতিক ক্ষমতার হাতবদলের পর জঙ্গলমহল অনেকটাই মাওবাদী আতঙ্ক থেকে নিজেকে বের করে এনেছিল। কিন্তু গত কয়েক মাসে জঙ্গলমহলে মাওবাদীরা তৎপর হয়ে উঠেছে। বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম জেলায় একের পর এক মিলছে মাওবাদী পোস্টার। তাৎপর্যের বিষয়, মাওবাদীদের নিশানায় এবার তৃণমূল নেতারা। পোস্টারের হুমকি দেখে জঙ্গলমহলের তৃণমূল নেতারা এখন আতঙ্কে ভুগছেন

পাশাপাশি ঝাড়গ্রামের চন্দ্রি এলাকায় চলেছে গুলিও। জখম হয়েছেন এক যুবক। গত সপ্তাহের ঝাড়গ্রাম ব্লকের মানিকপাড়া ফাঁড়ির রামকৃষ্ণ বাজার এবং সরডিহা স্টেশন সংলগ্ন একটি দেওয়ালে মাওবাদীদের নামে দুটি পোস্টার চোখে পড়ে স্থানীয়দের। তাতে ‘কিষেণজি অমর রহে’ বলে উল্লেখ করে ‘খেলা হবে’ (Khela Habe) বার্তা দেওয়া। পোস্টারে লেখা ছিল, 'এতদিন তৃণমূল খেলেছে জনগণের সঙ্গে, এবার মাওবাদী খেলবে তৃণমূল নেতার সঙ্গে।'

প্রসঙ্গত, একসময় মাওবাদীদের নিশানায় ছিলেন বাম নেতারা। আতঙ্কে এলাকাছাড়া হন বহু বাম নেতা-কর্মী। সেই সময় জঙ্গলমহলে প্রায়ই তৎকালীন শাসক দলের নেতা-কর্মীদের মৃতদেহ উদ্ধার হত। প্রায় ৫০০ জন বাম কর্মী-সমর্থক সেই সময় নিহত হন।

মাও পোস্টার (বামে)
TMC: মাওবাদী আতঙ্কে কাঁপছেন জঙ্গলমহলের তৃণমূল নেতারা, নিরাপত্তা চেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ ৫ নেতা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.