ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতেই বাবুল সুপ্রিয়র দত্তক নেওয়া গ্রামে ন্যাড়া হওয়ার হিড়িক

গ্রামবাসীদের বক্তব্য, সাংসদ থাকাকালীন এই গ্রাম দত্তক নিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। যদিও কয়েকটি সোলার লাইট, কিছু রাস্তা ও সাবমার্সেবল পাম্প লাগানো ছাড়া কোনও উন্নয়ন তিনি করেননি।
ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতেই বাবুল সুপ্রিয়র দত্তক নেওয়া গ্রামে ন্যাড়া হওয়ার হিড়িক
বাবুল সুপ্রিয়র দত্তক নেওয়া গ্রাম সিধাবাড়িতে মাথা ন্যাড়া করার হিড়িকনিজস্ব চিত্র

বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র দত্তক নেওয়া গ্রাম সালানপুরের সিধাবাড়ি। বাবুল সুপ্রিয়ের সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেবার কথা প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা। তারই প্রতিবাদে এদিন গ্রামের মানুষজন মাথা ন্যাড়া করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ২০১৮ সালের ৩এপ্রিল এই সিধাবাড়ি গ্রামকে মডেল গ্রাম করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়।

গ্রামবাসীদের বক্তব্য, সাংসদ থাকাকালীন এই গ্রাম দত্তক নিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। যদিও কয়েকটি সোলার লাইট, কিছু রাস্তা ও সাবমার্সেবল পাম্প লাগানো ছাড়া কোনও উন্নয়ন তিনি করেননি। এবার সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ায় তাও হবে না। গ্রামবাসীদের বক্তব্য, তাঁরা রাজনীতির শিকার হয়েছেন।

নিজস্ব চিত্র

অনেক গ্রামবাসী বলেন, এই গ্রামে এসে অনেক কিছু উন্নয়ন করার দাবি করেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেছিলেন এই গ্রামে হাসপাতাল হবে হবে, বড় বিদ্যালয় হবে। কিন্তু দু'বার সাংসদ হলেও তিনি কিছুই করেননি আর কখনও করবেনও না। আমাদের মতে, এই সিদ্ধান্ত ওনার আগেই নেওয়া উচিত ছিলো।

আজ সকালে সিধাবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা অমর মণ্ডল এবং বিনোদ দাস নিজেদের মাথা ন্যাড়া করেন এবং তারা জানান এই গ্রামকে বাবুল বাবু দত্তক নিয়ে যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা আজও পর্যন্ত পূরণ করেননি। আমাদের আশা ছিলো হয়তো এবার তিনি গ্রামে বিদ্যালয় করবনে এবং একটি বড় হাসপাতাল তৈরি করবেন। কিন্তু তা আর হবে না। তিনি তো বাবা হিসাবে গ্রামকে দত্তক নিয়েছিলেন। উনি চলে গিয়ে গ্রামকে অনাথ করে দিলেন। তাই আজ আমরা মাথা ন্যাড়া করে শোক প্রকাশ করে প্রতিবাদ জানালাম।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in