সাসপেনশনের সময়কাল পেরিয়ে যাওয়ার পর আবার সাসপেন্ড - বিশ্বভারতীতে ধর্নায় পড়ুয়ারা

পড়ুয়াদের অভিযোগ- তিনমাস সাসপেন্ড করার পর আবার তিনমাস সাসপেন্ড করে দিয়েছে। কী কারণে আবার সাসপেন্ড করা হল, সদুত্তর নেই।
সাসপেনশনের সময়কাল পেরিয়ে যাওয়ার পর আবার সাসপেন্ড - বিশ্বভারতীতে ধর্নায় পড়ুয়ারা
ধর্নায় পড়ুয়ারা ছবি- ফাল্গুনী পান

আন্দোলন করার শাস্তি হিসেবে বিশ্বভারতীর কর্তৃপক্ষ তিনজন পড়ুয়াকে সাসপেন্ড করেছিল তিন মাসের জন্য। সেই সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও ২-৩ মাসের জন্য তাদের সাসপেন্ড করা হয় বলে অভিযোগ। সাসপেনশন প্রত্যাহার করতে হবে। এই দাবি জানিয়ে ধর্নায় বসলেন বিশ্বভারতীর এক ছাত্র। উপাসনা গৃহের কাছে দুদিন ধরে তিনি ধরনায় বসেছেন। ওই পড়ুয়ার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন অন্য ছাত্র ছাত্রীরাও। প্রত্যাহার না করলে অনশন আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ওই পড়ুয়ারা।

ছবি- ফাল্গুনী পান

৯ জানুয়ারি রাস্তা ফেরতের দাবিতে ছাতিমতলায় মৌন অবস্থানে করেছিলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী এবং অন্য অধ্যাপক-অধ্যাপিকা, কর্মী, আধিকারিকদের একটা অংশ। সেই সময়ে ছাতিমতলার গেটের বাইরে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল বাম সমর্থক পড়ুয়ারা। সেদিনের বিশৃঙ্খলার জেরে তিনজন পড়ুয়াকে তিন মাসের জন্য সাসপেন্ড করে বিশ্বভারতী। সাসপেনশনের সময়কাল পেরিয়ে যাওয়ার পরও ফের ওই পড়ুয়াদের সাসপেন্ড করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তার জেরে প্রায় একটা শিক্ষাবর্ষ নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন তাঁরা। কোনওরকম বিজ্ঞপ্তি জারি না করেই কেন তাঁদের ফের সাসপেন্ড করা হল, তার প্রতিবাদে তাঁরা ধরনায় বসেছেন।

ছবি- ফাল্গুনী পান

বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ ও উপাচার্যের বিরুদ্ধে পোস্টার টাঙিয়ে ধর্নায় বসেন ফাল্গুনী পান নামে ওই ছাত্র। ফাল্গুনী পান বলেন, 'তিনমাস সাসপেন্ড করার পর আবার তিনমাস সাসপেন্ড করে দিয়েছে। কী কারণে আবার সাসপেন্ড করা হল, সদুত্তর নেই। এতে আমার ছাত্র জীবন শেষ হয়ে যাবে। সাসপেনশন প্রত্যাহার না করলে অনশন আন্দোলনের পথে যাব।' অনির্দিষ্টকালের জন্য আন্দোলন চালানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। যদিও, বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চায়নি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in