'বাংলা বিরোধী', ‘সাম্প্রদায়িক’ অর্জুনকে কেন দলে নিল তৃণমূল? ক্ষুব্ধ ইমাম অ্যাসোসিয়েশন

ইয়াহিয়ার প্রশ্ন, তৃণমূলে আসার পর এই বিষয়ে অর্জুনের অবস্থান কী বদলাবে? সে কি পার্লামেন্টে গিয়ে সি.এ.এ, এন.আর.সি প্রত্যাহারের দাবিতে সরব হবেন?
'বাংলা বিরোধী', ‘সাম্প্রদায়িক’ অর্জুনকে কেন দলে নিল তৃণমূল? ক্ষুব্ধ ইমাম অ্যাসোসিয়েশন
অর্জুন সিং ছবি - অর্জুন সিং অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

তৃণমূল-বিজেপিতে দল পাল্টানোর খেলা চলছে বিধানসভা ভোটের আগে থেকেই। গতকাল আবার এই খেলায় অন্য মাত্রা জুড়েছেন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। তাঁর তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন নিয়ে দলের মধ্যে চাপা উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। 'সাম্প্রদায়িক' অর্জুনকে দলে নেওয়ায় রাজ্যের শাসক শিবিরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশন। এর আগে বিজেপি থেকে তৃণমূলে ফিরেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। সেক্ষেত্রেও ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন ইমামদের সংগঠন।

বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মহম্মদ ইয়াহিয়া এক ভিডিও বার্তায় অর্জুনের এই প্রত্যাবর্তনের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে প্রশ্ন তোলেন, মঞ্চে দাঁড়িয়ে এন.আর.সি, সি.এ.এ সক্রিয় করার কথা বলে সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়ানো ব্যারাকপুরের সাংসদ এবার তৃণমূলে এসে কি এই কালা-আইনগুলির বিপক্ষে দাঁড়াবেন? পার্লামেন্টে গিয়ে সি.এ.এ, এন.আর.সি প্রত্যাহারের দাবিতে সরব হবেন? লাউডস্পিকারে আজান সংক্রান্ত মামলা তিনি কি হাইকোর্ট থেকে প্রত্যাহার করবেন?

ভিডিও বার্তায় ইয়াহিয়া বলেছেন, অর্জুন সিং-এর তৃণমূলে যোগদানকে ধিক্কার ও নিন্দা জানাচ্ছি। 'অর্জুন সিং-এর মত একজন বাংলা বিরোধীকে কোন যুক্তিতে দলে নেওয়া হল? যাঁকে দলে নেওয়া হল তাঁর বিরুদ্ধে তেলেনিপাড়ায় সাম্প্রদায়িক অশান্তি লাগিয়ে মানুষ খুন করার অভিযোগ রয়েছে। যেসব লোক একবার এদল, আরেকবার সেদল করে, যাদের জন্য সাধারণ মানুষকে প্রাণ দিতে হয়, তাঁদের কেন দলে আনা হল তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে প্রশ্ন সেটা।’

তৃণমূল নেতৃত্বকে খোঁচা দিয়ে বিজেপির হাতে শাসক দলের কর্মীদের মারধরের ঘটনাও উল্লেখ করেছেন ইয়াহিয়া। তিনি বলেন, ‘ভাটপাড়ায় তৃণমূল কর্মীদের উপর অত্যাচর কেউ ভোলেনি। যাঁরা সাধারণ তৃণমূল কর্মীদের উপর অত্যাচার করছে তাঁদেরই তৃণমূলে নিয়ে এসে বড় পদ দেওয়া হবে? এটাই কী তৃণমূলের সংস্কৃতি?’

ভিডিও-র শেষে ইমাম সংগঠনের চেয়ারম্যান হুমকির সুরেই বলেছেন, ‘সময় কিন্তু সবকিছু মনে রেখে দেবে’।

একই ঘটনা ঘটেছিল বাবুল সুপ্রিয়র ক্ষেত্রে। তৃণমূলে যোগদানের পর তাঁকে বালিগঞ্জ বিধানসভার উপনির্বাচনে টিকিট দেওয়া হয়েছিল। যা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মহম্মদ ইয়াহিয়া। এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছিলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী হিসাবে বাবুল সুপ্রিয়র নাম ঘোষণা করেছেন। কিন্তু বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশন এর বিরোধিতা করছে। আমরা বাবুলকে একটি ধর্মনিরপেক্ষ দলের প্রার্থী হিসাবে দেখতে চাই না। এই প্রার্থীকে বাতিল করা না হলে আমি বালিগঞ্জ থেকে নির্দল প্রার্থী হয়ে দাঁড়াব, যাতে বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে ধর্মনিরপেক্ষ ভোটাররা ভোট দিতে পারেন। এই বাবুল সুপ্রিয়র হাতে আসানসোলের দাঙ্গার রক্ত লেগে আছে, ইমাম রশিদির সন্তানের হত্যাকারী হিসাবে তাঁর নাম যুক্ত, তাঁকে ধর্মনিরপেক্ষ দলের প্রার্থী হিসাবে মানা যাচ্ছে না।’

অর্জুন সিং
WB BJP: রাজ্যে দলবদলের হিড়িক, ৭৭ থেকে ৬৯-এ নামছে বিজেপি

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in