পঞ্চায়েত ভোটে বিরোধীরা যেন প্রার্থী দিতে না পারে - দলীয় কর্মীদের বার্তা TMC বিধায়কের

তৃণমূলের বিধায়ককে বলতে শোনা গেছে, ‘২০২৩ সালে পঞ্চায়েত ভোট। এই এলাকায় যেন একটাও কোনো বিরোধী রাজনৈতিক দল প্রার্থী দিতে না পারে। যদিও প্রার্থী দেয়, একটা ভোটও যেন না পায় আপনারা সেদিকে শুধু লক্ষ্য রাখুন’।
পঞ্চায়েত ভোটে বিরোধীরা যেন প্রার্থী দিতে না পারে - দলীয় কর্মীদের বার্তা TMC বিধায়কের
TMC বিধায়ক কল্যাণ ঘোষফাইল চিত্র

এবার বিতর্কে জড়ালেন হাওড়ার ডোমজুড়ের তৃণমূলের বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ। ২০১৮ সালের মতো আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনও বিরোধী শূন্য করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই তাঁর এই মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল। যদিও এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি পিপলস রিপোর্টার।

দলেরই একটি মিটিং-এ তৃণমূলের বিধায়ককে বলতে শোনা গেছে, ‘২০২৩ সালে পঞ্চায়েত ভোট। এই এলাকায় যেন একটাও কোনো বিরোধী রাজনৈতিক দল প্রার্থী দিতে না পারে। যদিও প্রার্থী দেয়, একটা ভোটও যেন না পায় আপনারা সেদিকে শুধু লক্ষ্য রাখুন’।

সূত্রের খবর, এই ভিডিওটি পয়লা বৈশাখের আগের রাতের। হাওড়ার জগদীশপুরে দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেছিলেন ডমজুরের বিধায়ক তথা হাওড়া সদরের তৃণমূল সভাপতি কল্যাণ ঘোষ। সেখানেই এই বিতর্কিত মন্তব্য করেন বিধায়ক।

একজন রাজনৈতিক নেতা তথা বিধায়ক কী করে এমন কথা বলতে পারেন তা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। তিনি কি তাহলে ২০১৮ সালের স্মৃতি মনে করিয়ে দিতে চাইছেন! আশঙ্কা প্রকাশ করছেন বিরোধী দলের নেতারা। গণতান্ত্রিক শাসন ব্যাবস্থায় এমনটা যদি হয় তাহলে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায়? এই প্রশ্নও অনেকের মনে দানা বাঁধছে।

অন্যদিকে দলীয় বিধায়কের এই মন্তব্য প্রসঙ্গে দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ এক সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন- “ডোমজুড়ের বিধায়ক যেটা বলেছেন তার সঙ্গে সন্ত্রাসের কোনও সম্পর্ক নেই। দলীয় মিটিংয়ে যেকোনও দলই বলবে যে, কোনও ভোট যেন বিরোধীরা না পায়।এমনভাবে মানুষের পাশে থাকুন যাতে অন্য দল প্রার্থী খুঁজে না পায়, প্রার্থী দিতে না পারে। এর সাথে সন্ত্রাসের কী সম্পর্ক ?”

TMC বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ
তৃণমূলে এখন চোর, ডাকাত সবাই কর্মী - দাবি দলীয় বিধায়কের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.