রাজ্যপালের অপসারণ চেয়ে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রয়োজনে বিধানসভায় তাঁর অপসারণের দাবিতে প্রস্তাবও পেশ করতে পারে তৃণমূল
রাজ্যপালের অপসারণ চেয়ে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
ফাইল ছবি

তিনি রাজ্যপালের আসনে বসার পর থেকেই রাজ্যের সঙ্গে তার সংঘাত বারবার প্রকাশ্যে এসেছে। দ্বিতীয় বারের জন্য তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পরও তার কোনও অন্যথা হয়নি। বরং তা মাত্রা ছাড়িয়েছে। তাই রাজ্যপাল পদে জগদীপ ধনকরের অপসারণ চেয়ে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রয়োজনে বিধানসভায় তাঁর অপসারণের দাবিতে প্রস্তাবও পেশ করতে পারে তৃণমূল, এমনটাই সূত্রে জানা গিয়েছে।

জগদীপ ধনকর প্রথম থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্য সরকার ও মমতার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সরব হয়েছেন। বিধানসভা ভোটের আগে ও পরে নানা ইস্যু নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। তৃণমূল বরাবর তার বিরোধিতা করেছে। রাজ্যপাল বিজেপি নেতাদের মতো কথা বলছেন, এমন অভিযোগ তোলে তারা। নজিরবিহীনভাবে মুখ্যমন্ত্রী ও অন্য মন্ত্রীদের শপথের দিন ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে খোঁচা দিয়েছেন ধনকর।

তবে, সাম্প্রতিক দুটি ইস্যুতে বেশিই ক্ষুব্ধ হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের অনুমতি ছাড়াই রাজ্যপাল বিজেপি নেতাদের নিয়ে ‘ভোট পরবর্তী হিংসা’ দেখতে গিয়েছিলেন শিতলকুচি ও কোচবিহার। তখন তাঁর সাংবিধানিক পদের দায়িত্ব নিতে প্রশ্ন তোলে তৃণমূল। পাল্টা রাজ্যপালও জানান, তিনি সাংবিধানিক প্রধান। তিনি হিংসা কবলিত এলাকায় যেতেই পারেন। এছাড়াও মন্ত্রিসভার শপথের ঠিক আগে তিনি রাজ্যের মন্ত্রী এবং বিধায়কদের বিরুদ্ধে নারদ মামলায় পদক্ষেপ করার অনুমতি দেন।

গতকাল একপ্রস্থ নাটকের পর রাজ্যের দুই মন্ত্রী, এক বিধায়ক ও এক প্রাক্তন মন্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই। প্রতিবাদে তৃণমূল কর্মীরা সিজিও কমপ্লেক্সের সামনে বিক্ষোভ দেখালে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন রাজ্যপাল। এমনকী, সিজিও কমপ্লেক্সে থাকাকালীনই তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করেন। মুখ্যমন্ত্রী নিজে দিনের একটা বড় সময় প্রতিবাদ জানাতে নিজাম প্যালেসে কাটিয়েছেন।

সূত্রের খবর, এরপরই ক্ষুব্ধ হয়ে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যপালকে অপসারণ চেয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতিকে চিঠি লিখবেন বলে ঠিক করেছেন। জানা যাচ্ছে, তারপর বিধানসভায় রাজ্যপালের অপসারণের দাবিতে প্রস্তাবও পাশ করাবে তৃণমূল। এই রাজ্যপালকে ‘বয়কট’ করার ডাকও দেওয়া হতে পারে বলে খবর।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in