বর্ধমানে নাড্ডার জনসভাকে ছাপিয়ে যাবে মানিক সরকারের জনসভা, চ্যালেঞ্জ বামেদের

সিপিআইএম জেলা সম্পাদক অচিন্ত্য মল্লিকের দাবি, লকডাউনের পরে দল আরও শক্তি বৃদ্ধি করেছে। লড়াইয়ের ময়দানে বিজেপি-তৃণমূলকে সমানভাবে টক্কর দেবে সিপিআইএম।
বর্ধমানে নাড্ডার জনসভাকে ছাপিয়ে যাবে মানিক সরকারের জনসভা, চ্যালেঞ্জ বামেদের
মানিক সরকারফাইল ছবি সংগৃহীত

আর মাত্র কয়েকদিন পরেই রাজ‍্যে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে নিজেদের শক্তি পরীক্ষার জন্য ময়দানে নেমে পড়লো সিপিআইএম। 'ফেরাতে হাল, ধরো লাল' - এই স্লোগানকে সামনে রেখে ২ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ আগামীকাল বর্ধমান শহরে একটি বিশাল সমাবেশের আয়োজন করেছে তারা। এই সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকছেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা পলিটব্যুরো সদস্য মানিক সরকার। এই সভায় ব‍্যাপক জমায়েত হবে বলে আশা করছে সিপিআইএম, যা কয়েকদিন আগে এখানে হয়ে যাওয়া বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডার সভার জমায়েতকে টপকে যাবে।

রবিবার‌ বর্ধমান জেলার দলীয় কার্যালয় থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করে জেলা সম্পাদক অচিন্ত্য মল্লিক বলেন, পূর্ব বর্ধমানের প্রতি বুথ থেকে লোক আসবে মানিক সরকারের সভায়। ‌৯ জানুয়ারি নাড্ডার রোড শো এবং তার পরের দিন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা তথা অভিনেতা সোহমের র‍্যালিতে যে জমায়েত হয়েছিল, এই দুটো জমায়েতকেই ছাপিয়ে যাবে সিপিআইএমের এই সমাবেশ।"

প্রসঙ্গত, অবিভক্ত বর্ধমান একসময় বামেদের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ছিল। ধীরে ধীরে সেখানে বর্তমান শাসকদল ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এখন বিজেপিও শক্তি বাড়াচ্ছে। কিন্তু অচিন্ত্য মল্লিকের মতে, জেলায় ফের সিপিআইএম ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। তাঁর দাবি, সিপিআইএমের কর্মসূচিগুলিতে মানুষের যোগদান অনেক বেড়েছে। লকডাউনের পরে দল আরও শক্তি বৃদ্ধি করেছে। লড়াইয়ের ময়দানে বিজেপি-তৃণমূলকে সমানভাবে টক্কর দেবে সিপিআইএম।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in