অতিরিক্ত মদ্যপান, ফের হাসপাতালে কৃষ্ণ কুণ্ডু, মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিধায়ক চন্দনা বাউড়ি
ছবি - সংগৃহীত

অতিরিক্ত মদ্যপান, ফের হাসপাতালে কৃষ্ণ কুণ্ডু, মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিধায়ক চন্দনা বাউড়ি

কৃষ্ণের স্ত্রী রুম্পার অভিযোগ, একবারের জন্য চন্দনা বাউড়ি তাঁর স্বামীর খোঁজ পর্যন্ত নেয়নি।

ফের হাসপাতালে ভর্তি হতে হল কৃষ্ণ কুণ্ডুকে। গত কয়েকদিন ধরে বাঁকুড়ার বিধায়ক চন্দনা বাউরির সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। জানা গিয়েছে, বিধায়কের জন্য তিনি এত বেশি মদ্যপান করেছেন যে, তাঁকে আবার হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে। সাতদিন আগেই এই হাসপাতালে থেকেই বাড়ি ফিরেছিলেন কৃষ্ণ।

মঙ্গলবার কৃষ্ণকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তিনি নাকি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুভাষ সরকার এবং বিজেপি বিধায়ক সত্যনারায়ণ মুখোপাধ্যায়কে সতর্ক করেন, তাঁদের মুখোশ খুলে দেবেন বলে। চন্দনার সঙ্গে তাঁর দূরত্ব বৃদ্ধির কারণ এই সাংসদ ও বিধায়কই।

জানা গিয়েছে, অত্যধিক মদ্যপানের জেরে বমি, প্রবল মাথা যন্ত্রণায় ভুগছে কৃষ্ণ। কৃষ্ণর স্ত্রী রুম্পা জানান, জন্মাষ্টমীর দিন সকাল থেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন কৃষ্ণর। কয়েকদিন আগেই একটি সূত্র মারফত খবর পাওয়া যায় যে, বিজেপি বিধায়ক চন্দনা গাড়ির চালক কৃষ্ণপদ কুণ্ডুর সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছেন। চন্দনা-কৃষ্ণর বিয়ের একটি ছবিও প্রকাশ্যে চলে আসে। অস্বস্তিতে পড়েন জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। কটাক্ষ শুরু করে শাসকদলও।

অতিরিক্ত মদ্যপান, ফের হাসপাতালে কৃষ্ণ কুণ্ডু, মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিধায়ক চন্দনা বাউড়ি
বিজেপির বিধায়ক চন্দনা বাউড়ির জন্য ‘পাগল’ হয়ে গিয়েছেন কৃষ্ণ কুন্ডু, দাবি স্ত্রী রুম্পার

পরে জলঘোলা বাড়তেই স্বামী শ্রবণ বাউরিকে পাশে বসিয়ে একটি ফেসবুক লাইভও করেন চন্দনা। সেখানে তিনি দাবি করেন যে, বিরোধীরা চক্রান্ত করে তাঁর বদনাম করছে। স্বামীর সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির জেরে তিনি থানায় চলে গিয়েছিলেন। পরে অবশ্য ভুল বুঝতে পেরেছেন।

গত ১৮ অগস্ট চন্দনার সঙ্গে বিজেপি নেতা কৃষ্ণের পরকীয়ার অভিযোগ ওঠে। সেদিন রাতে বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাটি থানায় চন্দনা ও কৃষ্ণকে দেখা যায়। তখন থানায় যান চন্দনার স্বামী শ্রবণ বাউড়ি এবং কৃষ্ণের স্ত্রী রুম্পাও। পরে বাঁকুড়ার পুলিশ সুপার ধৃতিমান সরকার বলেন, ‘রুম্পা কুন্ডু একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। আমরা অভিযোগ খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় তদন্ত ও পদক্ষেপ করব।’ বিজেপি সূত্রের খবর, কৃষ্ণ চন্দনার গাড়ির চালক নন। তিনি শালতোড়ায় বিজেপির সহ-আহ্বায়ক।

কৃষ্ণের স্ত্রী রুম্পার অভিযোগ, বিধায়ক চন্দনা বাউড়ির জন্য তাঁর সংসার ভাঙতে বসেছে। ডাক্তার বলেছেন তাঁর স্বামী প্রায় পাগল হয়ে গেছে। অথচ একবারের জন্য চন্দনা তাঁর স্বামীর খোঁজ পর্যন্ত নেয়নি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in