সৌমিত্র খাঁর হোয়াটস অ্যাপে দিলীপ-কুণালের ছবি!
কুনাল ঘোষের সাথে আলোচনায় ব্যস্ত দিলীপ ঘোষছবি- সোশ্যাল মিডিয়া

সৌমিত্র খাঁর হোয়াটস অ্যাপে দিলীপ-কুণালের ছবি!

কোথায় একসঙ্গে ছবি তুললেন দিলীপ ও কুণাল? জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছিল তাঁদের দু'জনকে।

একজন বিজেপি রাজ্য সভাপতি আর একজন তৃণমূলের মুখপাত্র - এই দু'জনের মধ্যে সখ্যতা বাড়ছে? এই নিয়ে আপাতত রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা তুঙ্গে। দিলীপ ঘোষ ও কুণাল ঘোষ একসঙ্গে একটি ছবি তোলেন। তা নিয়ে বিস্ফোরক বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। সেই ছবি হোয়াটসঅ্যাপে ডিপি হিসাবে রাখেন তিনি। কেন তিনি নিজের হোয়াটসঅ্যাপে দুই দলের দুই ঘোষের ছবি ডিপি করলেন? রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, দু'জনের মধ্যে সখ্যতা নিয়ে খোঁচা দিতেই তাঁর এই ডিপি পরিবর্তন?

যদিও বিষ্ণুপুরের সাংসদের দাবি, যে হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে ডিপি বদল হয়েছে, তা তাঁর অফিশিয়াল নম্বর নয়। তাঁর বদনাম করতেই এই ধরনের কাজ করা হচ্ছে। কোথায় একসঙ্গে ছবি তুললেন দিলীপ ও কুণাল? জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছিল তাঁদের দু'জনকে। অনুষ্ঠান বাড়িতে তাঁদের বেশ কিছুক্ষণ একসঙ্গে কথা বলতেও দেখা যায়। পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি ভাইরাল হয়।

সেই ছবি বিষ্ণুপুরের সংসদের 'আনঅফিশিয়াল' হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে ডিপি হয়। এই ডিপি পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে সৌমিত্র খাঁ হয়তো অন্য বার্তা দিতে চাইছেন ? বিজেপি ও তৃণমূলের নিচুতলার কর্মীরা যেখানে প্রতিনিয়ত মার খাচ্ছেন, সেখানে দাঁড়িয়ে দলের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে যথেষ্ট 'সখ্যতা' রয়েছে বোঝাতে চাইছেন?

উল্লেখ্য, এর আগে ফেসবুকে দিলীপ ঘোষ ও শুভেন্দু অধিকারীকে কটাক্ষ করেছিলেন সৌমিত্র। পাশাপাশি যুব মোর্চার সভাপতি পদ থেকেও পদত্যাগ করেছিলেন। যদিও কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ইস্তফা প্রত্যাহার করে নেন তিনি। এদিকে, সৌমিত্রর পাশে দাঁড়ালেন রাজ্য বিজেপির সহ-সভাপতি বিশ্বপ্রিয় রায়চৌধুরী। তাঁর দাবি, সৌমিত্র খাঁ দলের শৃঙ্খলা ভাঙেননি। যা করেছেন, আবেগে করেছেন। তাই তাঁর বিরুদ্ধে শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি কোনও ব্যবস্থা নেয়নি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in