BJP: দলের সব সেল ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ সুকান্ত মজুমদারের, গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে এই সিদ্ধান্ত!

মিডিয়া, স্বাস্থ্য, শিল্প-সহ বিজেপি-র একাধিক সেল রয়েছে রাজ্যে। সবকটিই ভেঙে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত, তা নিয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানা যায়নি।
BJP: দলের সব সেল ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ সুকান্ত মজুমদারের, গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে এই সিদ্ধান্ত!
সুকান্ত মজুমদারফাইল ছবি সংগৃহীত

পুরভোটের ঠিক আগে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার দলের সব সেল ও বিভাগ ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন। এই মর্মে বৃহস্পতিবার রাতে একট বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। তাঁর অফিস সেক্রেটারী প্রণয় রায় স্বাক্ষরিত নির্দেশনামা প্রকাশ্যে এসেছে।

তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, ডঃ সুকান্ত মজুমদারের নির্দেশে সব বিভাগ ও সেল ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। নতুন করে তৈরি না হওয়া পর্যন্ত এই নির্দেশ জারি থাকবে। যতদিন না নতুন নিয়োগ হচ্ছে, ততদিন এই কমিটি ভাঙা অবস্থায় থাকবে।

পুরভোটের আগে এই সিদ্ধান্তে উঠছে নানা প্রশ্ন। দলীয় সূত্রের খবর, রাজ্যে বিজেপির ৩৫টি বিভাগ ও ১৫টি সেল রয়েছে। তার মধ্যে মিডিয়া, স্বাস্থ্য, শিল্প-সহ বিজেপি-র একাধিক সেল রয়েছে রাজ্যে। সবক’টিই ভেঙে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত, তা নিয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানা যায়নি।

দলের একাংশ মনে করছেন, সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে সুকান্ত বলেছিলেন, দলকে শক্তিশালী করাই তাঁর উদ্দেশ্য। সম্প্রতি নতুন রাজ্য কমিটি গঠন করেছেন তিনি। ফলে নতুন সেল গঠনের ভাবনাচিন্তা সেই কারণে হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এবার সেই সেল ও বিভাগে কতটা রদবদল হয়, সেটাই দেখার।

দলের একাংশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, তৃণমূল স্তরে কার্যকরী থাকে দলের যে সেল ও বিভাগগুলি, সেগুলিকে ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে আগামী পুরভোটে কীভাবে তৃণমূল স্তরে কাজ হবে, তা নিয়েও সংশয় তৈরি হয়েছে। সংগঠনকে মজবুত করার জন্যই এই সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হলেও খোলনলচে বদলে আদৌ কতটা কাজ হবে, তা নিয়ে দ্বন্দ্বে বঙ্গ বিজেপি।

দলীয় নেতৃত্ব এব্যাপারে মুখ না খুললেও দলের অন্দরের দ্বন্দ্ব দূর করতে এই পদক্ষেপ ভূমিকা নেবে বলে নিচুতলার কর্মীরা আশাবাদী। তবে এই রদবদলকে কেন্দ্র করে ফের দলের অন্দরে ক্ষোভ দানা বাঁধতে পারে বলে অনেকের আশঙ্কা।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি দলের বিরুদ্ধে অসন্তোষ প্রকাশ করে বহু বিক্ষুব্ধ বিজেপি বিধায়ক, নেতা দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। বিজেপির নতুন রাজ্য কমিটি নিয়েও কর্মীরা ক্ষুব্ধ। এই পরিস্থিতিতে বিজেপি সভাপতির সিদ্ধান্ত যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

সুকান্ত মজুমদার
BJP: শান্তনু ঠাকুরের বাড়িতে গোপন বৈঠক জয়প্রকাশ, সায়ন্তনদের - বিক্ষুব্ধরা কী সদলবলে তৃণমূলে!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in