এবার দিলীপ ঘোষের “রগড়ে দেব” মন্তব্যের প্রতিবাদে মুখ খুললেন লকেট চট্টোপাধ্যায়

লকেট বলেন, 'আমার অন‌্য সহ-শিল্পীরা কী মন্তব্য‌ করেছেন জানি না, আমি দিলীপবাবুর এই ধরনের মন্তব‌্যকে কখনওই সমর্থন করি না। এটা আমার কাছেও অসম্মানজনক।’
এবার দিলীপ ঘোষের “রগড়ে দেব” মন্তব্যের প্রতিবাদে মুখ খুললেন লকেট চট্টোপাধ্যায়
লকেট চট্টোপাধ্যায় এবং দিলীপ ঘোষফাইল ছবি

শিল্পীদের নিয়ে 'রগড়ানি' সংক্রান্ত মন্তব্যের প্রেক্ষিতে একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে চলেছেন বঙ্গ বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিতর্ক বাড়িয়ে ফের তিনি বলেন, শিল্পীরা কোনও কাজ করেন না। সারাজীবন শুধু বিতর্কই করেন। শিল্পীদের নিয়ে করা তাঁর মন্তব্যে যে তিনি অনড়, তা ফের প্রমাণ করলেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি। তাঁর এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন হুগলি সাংসদ তথা বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়। লকেট বলেন, 'এই ধরনের মন্তব্য‌ আমি সমর্থন করি না। এবং এটা আমার কাছেও অত‌্যন্ত অসম্মানজনক।'

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি একটি সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেন দিলীপ ঘোষ। সাক্ষাৎকারে কেন্দ্র সরকারের নীতির বিরুদ্ধে বলিউডের কয়েকজন শিল্পীদের গাওয়া একটি গান নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হয়। তার প্রেক্ষিতে তিনি বুঝিয়েছিলেন, বুদ্ধিজীবীরা সমাজের বোঝা। তাঁর জবাব ছিল, ‘আমি শিল্পীদের বলেছি, আপনারা গান গান, নাচুন। ওটা আপনাদের শোভা পায়। রাজনীতি করতে আসবেন না। ওটা আমাদের জন্য ছেড়ে দিন। নাহলে রগড়ে দেব। আর শিল্পীরা জানেন, আমি কীভাবে রগড়াই।’ তাঁর এই মন্তব্যের পরই শিল্পীমহলে ক্ষোভ বাড়ে। সোশ‌্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদের ঝড় বয়। বিজেপির শিল্পী নেতা-নেত্রীরা প্রতিবাদ জানান। তা সত্ত্বেও তিনি যে নিজের তত্ত্বে অনড়, তা বুঝিয়ে ফের স্পষ্ট বলেছেন, শিল্পীরা শুধু বিতর্ক করতেই জানেন।

মঙ্গলবার সকালে চুঁচুড়ায় লকেটের সমর্থনে প্রায় তিন কিলোমিটার রোড শো করেন দিলীপ ঘোষ। রোড শো শেষে সেই বিতর্কিত প্রসঙ্গে নতুন করে বিতর্ক তৈরি করেন তিনি। তাঁর সমর্থনে রোড শো থাকলেও তিনি যে এই মন্তব্যকে প্রশ্রয় দেন না, তা স্পষ্ট করেছেন লকেট। কর্মসূচি শেষে ব‌্যান্ডেলের বাড়িতে তিনি বলেন, ‘আমি নিজেও একজন শিল্পী। আমি জানি, সিনেমা, টিভিতে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা কতটা কষ্ট করে কাজ করেন। লাইট, সাউন্ড, ক্যামেরা, দর্শক আমাদের কাছে ভগবান। আমার অন‌্য সহ-শিল্পীরা কী মন্তব্য‌ করেছেন জানি না, আমি দিলীপবাবুর এই ধরনের মন্তব‌্যকে কখনওই সমর্থন করি না। এটা আমার কাছেও অসম্মানজনক।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in