Barrackpore: ট্রাফিক পুলিশের উদ্যোগে হারানো বালককে ফিরে পেল পরিবার

পুলিশের উদ্যোগে ১২ বছরের এক বালক উত্তরাখন্ড থেকে মামাবাড়িতে এসে রাস্তায় হারিয়ে যাওয়ার পর আবারও ফিরে পেল তার বাবা মাকে।
Barrackpore: ট্রাফিক পুলিশের উদ্যোগে হারানো বালককে ফিরে পেল পরিবার
ট্রাফিক পুলিশের প্রচেষ্টায় হারানো বালককে ফিরে পেল পরিবারনিজস্ব চিত্র

পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ চলাকালীন সঠিক ও সত্যি সামাজিক নিরাপত্তার নিদর্শন দেখা গেল ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের অন্তর্গত ট্র্যাফিক বিভাগের ব্যারাকপুর ষ্টেশন চত্বরে। আজ আরও একবার প্রমাণ হল, পুলিশ মানুষকে নিরাপত্তা দেয়। পুলিশের উদ্যোগে ১২ বছরের এক বালক উত্তরাখন্ড থেকে মামাবাড়িতে এসে রাস্তায় হারিয়ে যাওয়ার পর আবারও ফিরে পেল তার বাবা মাকে।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ ব্যারাকপুর রেল ষ্টেশনের সামনে ট্র্যাফিক বুথে ১২ বছরের এক বালককে কর্তব্যরত ট্র্যাফিক অফিসার, সাব ইনস্পেক্টর তুষারকান্তি ব্যানার্জির হাতে তুলে দিয়ে যান এক অটোচালক। বাচ্চাটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর জানা যায় সে উত্তরাখন্ডের হরিদ্বার থেকে বাবা মা-র সাথে ইছাপুরে মামার বাড়ী ঘুরতে এসেছিল। এদিন বাড়িতে বাবা-মা বকাবকি করায় বাড়ী থেকে বেরিয়ে যায় ওই বালক। ভেবেছিলো আবারও হরিদ্বারে ফিরে যাবে। কিন্তু রাস্তা না চিনতে পেরে সে যথারীতি হারিয়ে যায়। পথে এক অটোচালক তাকে দেখতে পেয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

বালকটির সঙ্গে কথা বলে পুলিশ অফিসার বুঝতে পারেন বাবা-মা বকাঝকা করায় ছোট্ট ছেলেটি মামার বাড়ী থেকে বেরিয়ে এসেছে এবং অচেনা জায়গা হওয়ার কারণে পথ হারিয়ে ফেলেছে। অনেক জিজ্ঞাসাবাদ করার পর ছেলেটির কাছ থেকে তাঁর মামার মোবাইল নম্বর জানতে পারা যায়। সেখানে ফোন করে ছেলেটির বাবার নাম্বার উদ্ধার করে পুলিশ।

এরপর ফোনে যোগাযোগ করে ছেলেটির বাবাকে সত্বর ব্যারাকপুর স্টেশনে আসতে বলা হয় এবং সেই মত কিছুক্ষণ পরেই ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায় ছেলেটির বাবা ও এক মামা। পুলিশের পক্ষ থেকে অভিভাবকদের হাতে বালকটিকে তুলে দেওয়া হয়।

এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে টেলিফোনে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের ট্র্যাফিক বিভাগের উপ-নগরপাল সন্দীপ কররা জানান, ট্র্যাফিক সপ্তাহের ৬ষ্ঠ ও অন্তিম দিনে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের ট্র্যাফিক বিভাগ এই ঘটনার মাধ্যমে সকলের কাছে এ এক অভিনব বার্তা দিলো তা বলাই বাহুল্য। এটা আমাদের কাজের মধ্যেই পড়ে। ট্র্যাফিক অফিসার তুষার কান্তি ব্যানার্জি যেভাবে উদ্যোগ নিয়ে আজ এক পরিবারের হাতে তাদের হারিয়ে যাওয়া সন্তানকে ফিরিয়ে দিলেন তা খুবই ভালো কাজ। তিনি যাতে পুরস্কৃত হন আমি তার জন্য সুপারিশ করবো।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in