বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মৃত ১৪ জন, মুখ্যমন্ত্রী কি শুধু ভবানীপুর নিয়ে ব্যস্ত! প্রশ্ন সূর্যকান্তের

মুখ্যমন্ত্রী ভবানীপুর নিয়ে ব্যস্ত থাকায় প্রাথমিক দায়িত্বটুকুও ভুলে গিয়েছেন? আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী ফের বৃষ্টি হলে তা মোকাবিলার ব্যবস্থা সরকারের আছে তো? প্রশ্ন তাঁর।
বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মৃত ১৪ জন, মুখ্যমন্ত্রী কি শুধু ভবানীপুর নিয়ে ব্যস্ত! প্রশ্ন সূর্যকান্তের
সূর্যকান্ত মিশ্রফাইল ছবি

গত তিনদিনে রাজ্যে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মারা গিয়েছেন ১৪ জন। কিন্তু রাজ্য সরকার শুধু ব্যস্ত ভবানীপুরের মানুষদের নিয়ে। দুর্গত মানুষদের প্রতি নজর না দেওয়া এবং তাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা করার অভিযোগে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। তাঁর বক্তব্য, প্রাকৃতিক দুর্যোগ হতেই পারে। কিন্তু সেই দুর্যোগ সামলে মানুষের সুযোগ-সুবিধা দেখার দায়িত্ব রাজ্য সরকারের। মুখ্যমন্ত্রী কি শুধু ভবানীপুর নিয়ে ভাবছেন?

নিম্নচাপের বৃষ্টি কিছুটা কমেছে। যদিও ফের অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, এমনটাই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। বৃষ্টি কমলেও বহু এলাকা এখনও জলমগ্ন। বহু মানুষকে ঘর ছেড়ে ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিতে হয়েছে। সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, কুড়ি জন মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। তার মধ্যে শিশু-কিশোর রয়েছে। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১৪ জনের। কিন্তু শুধুমাত্র ভবানীপুরে এনডিআরএফকে তৈরি রাখা হয়। দমকল ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী নামানো হয়েছিল।

যদিও মুখ্যমন্ত্রী সাফাই গেয়েছেন, এটা প্রকৃতির বিষয়। এটা আমার হাতে নেই। ক্ষুব্ধ সূর্যকান্তের অভিযোগ, যাঁরা ঘরছাড়া হয়েছেন, ত্রাণ শিবিরে পৌঁছে দেওয়া, খাবারের ব্যবস্থা করা, এগুলো সব সরকারের দায়িত্ব। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী ভবানীপুর নিয়ে ব্যস্ত থাকায় সেই প্রাথমিক দায়িত্বটুকুও ভুলে গিয়েছেন? আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী ফের বৃষ্টি হলে তা মোকাবিলার ব্যবস্থা সরকারের আছে তো? প্রশ্ন তাঁর।

বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যুর ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মানুষের নিরাপত্তার নিয়ে এ ধরনের ঘটনার জন্য কারা দায়ী? দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করে দায়ীদের চিহ্নিত করতে পারলেই সমস্যার সমাধান সম্ভব।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.