West Bengal: বুধবার রাজ্য মন্ত্রীসভায় রদবদল, বাদ পড়তে পারেন বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট

আগামী বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে এই রদবদল ঘোষিত হবে। সোমবার একথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য অনুসারে, রদবদলে কয়েকজন হেভিওয়েট সদস্য তাদের মন্ত্রী পদ হারাতে পারেন।
সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছবি - এআইটিসি ফেসবুক পেজ ভিডিও থেকে স্ক্রীনশট

বড়োসড়ো রদবদল হতে চলেছে রাজ্য মন্ত্রীসভায়। আগামী বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে এই রদবদল ঘোষিত হবে। সোমবার একথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য অনুসারে, রদবদলে কয়েকজন হেভিওয়েট সদস্য তাদের মন্ত্রী পদ হারাতে পারেন।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "এই ইস্যুতে অনেক জল্পনা-কল্পনা চলছে। আমি স্পষ্ট করতে চাই যে সুষ্ঠুভাবে কাজ করার জন্য রাজ্য মন্ত্রিসভায় কিছু রদবদল প্রয়োজন। আমরা বুধবার বিকাল ৪ টায় রদবদলের বিশদ ঘোষণা করব। এই প্রক্রিয়ায়, কিছু বর্তমান মন্ত্রিসভার সদস্যদের তাদের মন্ত্রীত্বের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে এবং তাদের অভিজ্ঞতা দলীয় সংগঠনে কাজে লাগানো হবে, একইভাবে চার থেকে পাঁচজন নতুন মুখকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।”

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) আধিকারিকদের দ্বারা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেপ্তারের পরে, তার আগে যে তিনটি বিভাগ ছিল, তা আপাতত তাঁর অধীনে রয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, "এতগুলো বিভাগের দায়িত্ব সামলানো আমার পক্ষে সম্ভব নয়। একই সাথে, গত বছর আমাদের দুই সিনিয়র মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি এবং সাধন পান্ডের মৃত্যুর পরে সেই বিভাগেও শূন্যতা তৈরি হয়েছে। তাই মন্ত্রিসভায় রদবদল হবে।"

মন্ত্রীসভার রদবদল প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদের একজন সিনিয়র সদস্য জানিয়েছেন, রদবদলের পর ক্লিন ইমেজের তরুণ মুখদের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। তিনি আরও জানান, "যে মন্ত্রীদের বাদ দেওয়া হবে এবং সাংগঠনিক কাজের জন্য পাঠানো হবে, তালিকায় কয়েকটি হেভিওয়েট মুখের অন্তর্ভুক্তির সাথে একটি বড় চমক আশা করা যেতে পারে।"

তাঁর মতে, পার্থ চ্যাটার্জির গ্রেপ্তার এবং ইডি তদন্তকারীদের দ্বারা বিশাল অঙ্কের টাকা পুনরুদ্ধারের পরে দল যে পরিমাণ কলঙ্কিত হয়েছে, তা দূর করতে এবং তৃণমূল কংগ্রেসের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ করার লক্ষ্যে, দল ইতিমধ্যে জেলা নেতৃত্বের রদবদল প্রক্রিয়া শুরু করেছে। উল্লেখ্য, এদিনই তৃণমূলের তরফে রাজ্য নেতৃত্বের রদবদলের কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সদস্য বলেন, "এবার রদবদল সব স্তরেই হবে এবং এই পরিবর্তনগুলি দুর্নীতির ইস্যুতে জিরো টলারেন্স সম্পর্কে একটি স্পষ্ট ইঙ্গিত দেবে।"

এদিনই তাঁর ঘোষণায়, মুখ্যমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন শীঘ্রই উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং মুর্শিদাবাদকে বিভক্ত করে রাজ্যে আরও সাতটি নতুন জেলা তৈরি করা হবে। এর ফলে রাজ্যে মোট জেলার সংখ্যা ২৩ থেকে বেড়ে ৩০ হবে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in