পার্থ-অর্পিতার ১৪ দিনের জেল হেফাজত, 'পার্থকে বলির পাঁঠা করা হয়েছে' - দাবি আইনজীবীর

শুক্রবার, আদালতের সওয়ালে পার্থর আইনজীবী জানান, "পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ভাবছেন না। তবে প্রয়োজনে তিনি ইস্তফা দিতে পারেন।
পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়
পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়গ্রাফিক্স সুমিত্রা নন্দন

পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল ব্যাঙ্কশাল আদালত। স্কুল সার্ভিস কমিশনে নিয়োগ দুর্নীতি মামলার শুনানি শেষে এই নির্দেশ দিলেন বিচারপতি। আগামী ১৮ আগস্ট এঁদের দুজনকেই ফের আদালতে পেশ করা হবে।

দুদিনের ইডি হেফাজত শেষ হওয়ার পর ফের আজ ব্যাঙ্কশাল কোর্টে তোলা হয় পার্থ-অর্পিতাকে। শিক্ষক নিয়োগে কোটি কোটি টাকা আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে ১০ দিনের ইডি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। মেয়াদ শেষ হওয়ার পর গত বুধবার তাঁদের ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হয়েছিল। কিন্তু মামলার শুনানির পর ফের দু'দিনের ইডি হেফাজত দিয়েছিল আদালত। আজ সেই মেয়াদ শেষ হয়েছে। প্রায় ১ ঘণ্টা ধরে আদালতে সওয়াল চলার পর দু'জনেরই জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি।

এদিন আদালতে সওয়াল চলাকালীন পার্থর আইনজীবী জানান, "পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ভাবছেন না। তবে প্রয়োজনে তিনি ইস্তফা দিতে পারেন। উনি এখন একজন সাধারণ মানুষ। উনি কোথাও পালাবার লোক নন। পার্থর থেকে কোনও কিছু বাজেয়াপ্ত করেনি ইডি। পার্থকে বলির পাঁঠা করা হয়েছে। ঘুষ নেওয়ার কোনও প্রমাণ মেলেনি পার্থর বিরুদ্ধে। এখনও পর্যন্ত যে সমস্ত ডিড উদ্ধার করা হয়েছে, সব নকল। পার্থর সাথে অর্পিতার কোনও সম্পর্ক নেই।"

ইডি সূত্রের খবর, গত কয়েকদিন ধরে দফায় দফায় জেরা করা হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। দু'জনকে মুখোমুখি বসিয়েও জেরা করা হয়েছে। জেরায় অর্পিতা মুখোপাধ্যায় সহযোগিতা করলেও পার্থ চট্টোপাধ্যায় তদন্তে কোনও সহযোগিতা করেননি।

ইডি আধিকারিকদের মতে, অর্পিতা জানিয়েছেন, হামেশাই পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের লোকজন এসে তাঁর ফ্ল্যাটে টাকা রেখে যেতেন। কিন্তু এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পার্থ। এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না তিনি এবং অর্পিতাকে সেভাবে চেনেন না বলেই দাবি পার্থর।

অন্যদিকে, পার্থ-অর্পিতার পর এবার ইডির নজরে রয়েছেন পার্থর মেয়ে-জামাই। স্কুল সার্ভিস কমিশনে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে সোহিনী ভট্টাচার্য ও তাঁর স্বামী কল্যাণময় ভট্টচার্যকে ইতিমধ্যেই তলব করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ইডি সূত্রের খবর, বর্তমানে বিদেশে আছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে-জামাই। ই-মেল মারফত তাঁদের কলকাতায় তলব করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in