সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারের ক্ষেত্রে জোর দিতে চাইছে SFI, প্রশিক্ষণের ভাবনা দলের অন্দরে

এ বিষয়ে পার্টির অন্দরে চলছে আলোচনা। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের দিকটিকে বিশেষ জোর দিতে চাইছে বামেরা। মূলত প্রযুক্তিগত ব্যবহারে দলীয় কর্মীদের সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে উন্নত করাটাই তাঁদের মূল লক্ষ্য।
সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারের ক্ষেত্রে জোর দিতে চাইছে SFI, প্রশিক্ষণের ভাবনা দলের অন্দরে
প্রতীকী ছবি

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের কর্মকাণ্ড প্রচারের ক্ষেত্রে বাড়তি উদ্যোগ নিতে চাইছে সিপিআই(এম)-এর ছাত্র-যুব সংগঠন, SFI-DYFI। আজকালকার যুগে ইলেকট্রনিক মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়ার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের সক্রিয়তা যথেষ্ট বাড়ছে। এবং তার ব্যবহার সবচেয়ে বেশি দেখা যাচ্ছে তরুণ প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের মধ্যে। ঠিক এই কারণেই নিজেদের দলের প্রচারের জন্য এই প্ল্যাটফর্মকে কাজে লাগাতে চাইছে সিপিআই(এম)-এর ছাত্র-যুবরা।

এর আগে বহুবার নির্বাচন সংক্রান্ত কাজে দলের প্রচারের জন্য সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করেছিল সিপিআই(এম)। তবে এবার এ বিষয়ে পার্টির অন্দরে চলছে আলোচনা। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের দিকটিকে বিশেষ জোর দিতে চাইছে বামেরা। জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে আরও বেশি করে বাম ছাত্র-যুবদের অন্তর্ভুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে দলের তরফে। সূত্রের খবর, মূলত প্রযুক্তিগত ব্যবহারে দলীয় কর্মীদের সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে উন্নত করাটাই তাঁদের মূল লক্ষ্য।

গত ১ জুন, বুধবার এসএফআই গড়িয়া-যাদবপুর আঞ্চলিক কমিটির পক্ষ থেকে পাটুলিতে একটি গণকনভেনশনের আয়োজন করা হয়েছিল। কনভেনশনের উদ্বোধক হিসেবে সেখানে উপস্থিত ছিলেন এসএফআই রাজ্য কমিটির সহ-সম্পাদক শুভজিৎ সরকার। এছাড়াও কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন এসএফআই -এর রাজ্য নেতৃত্ব অভিনন্দন দত্তগুপ্ত এবং রামিজ রাজা।

এদিন কনভেনশনে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের প্রসঙ্গে ছাত্রনেতা শুভজিৎ সরকার বলেন, "আগামী দিনে সোশ্যাল মিডিয়াকে গুরুত্ব সহকারে দেখতে হবে। সংগঠন এবং মতাদর্শের কথা ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে এই মাধ্যমকে ব্যবহার করতে হবে।"

ছাত্রনেতা অভিনন্দন দত্তগুপ্ত জানান, "তরুণ প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা সোশ্যাল মাধ্যমের সাহায্যে যোগাযোগ স্থাপনে স্বচ্ছন্দ বোধ করে। আমরা দেখেছিলাম করোনা পরিস্থিতিতে কীভাবে এই মাধ্যম ব্যবহার করে মানুষের কাছে দ্রুত পৌঁছে যাওয়া যায়। তাই এ বার এই মাধ্যমকে ব্যবহার করে আমাদের কথা মানুষের মধ্যে পৌঁছে দেবো আমরা।"

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে বহুবার সিপিআই(এম)-এর অন্দরে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের ক্ষেত্রে আলোচনা হয়েছে। ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের সময় এবং তার আগে ও পরে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে যথেষ্ট মাত্রায় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাবহারের প্রবণতা দেখা গেছে। সেটাকেই এবার তরুণ প্রজন্মের মাধ্যমে বড় পরিসরে ব্যবহার করতে চাইছে সিপিআই(এম)।

এ প্রসঙ্গে সিপিআইএমের এক নেতা জানান, "অন্যান্য রাজনৈতিক দল সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে অনেক ব্যাপক ভাবে। এই জন্য পেশাদারী সংস্থার সাহায্য নেওয়া হয়। এর জন্য অনেক টাকা খরচ হয়। আমরা সেই রাস্তায় হাঁটব না। আমাদের ছেলেমেয়েরাও দক্ষতার সাথে এই কাজটা করে চলেছে। ওদের আর একটু ট্রেনিংয়ের প্রয়োজন। অন্যদের থেকে ওরা ভাল করবে। ওদের মধ্যে অনেক সৃজনশীল, পরিশ্রমী, দক্ষ ছেলেমেয়ে আছে। যারা বাকিদের শিখিয়ে দেবে।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in