বিধায়ক জুনের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে মন্ত্রী মাহাতোকে - নির্দেশ ক্ষুব্ধ মমতার

বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে মন্ত্রীকে তীব্র ভর্ৎসনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "জুনের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। এমনভাবে ক্ষমা চাইবে যেন জুন আমায় ফোন করে বলে যে তুমি তাঁর কাছে ক্ষমা চেয়েছ।"
জুন মালিয়া, মমতা ব্যানার্জি এবং শ্রীকান্ত মাহাতো
জুন মালিয়া, মমতা ব্যানার্জি এবং শ্রীকান্ত মাহাতোফাইল ছবি

তৃণমূল বিধায়ক তথা সেলিব্রিটি জুন মালিয়ার কাছে ক্ষমা চাইতে হবে মন্ত্রী শ্রীকান্ত মাহাতোকে। মন্ত্রীকে এমন নির্দেশ দিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। মন্ত্রীর 'অপরাধ' - তিনি প্রকাশ্যে বলে ফেলেছিলেন দলের সেলিব্রিটি নেতা নেত্রীরা লুটেপুটে খাচ্ছেন।

ঘটনার সূত্রপাত গত সপ্তাহে। দলীয় কর্মীসভায় জুন মালিয়া, দেব, নুসরত, মিমির মতো দলের সেলিব্রিটি নেতা নেত্রীদের নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন শালবনীর তৃণমূল বিধায়ক শ্রীকান্ত মাহাতো। এর জেরে শোকজ করা হয় মন্ত্রীকে। ক্ষমাও চান তিনি। কিন্তু তাতেও বরফ গললো না। মন্ত্রীকে জুন মালিয়ার সামনে নত হতে বললেন মমতা ব্যানার্জী।

বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা প্রতিমন্ত্রী শ্রীকান্ত বাবুও। সেখানেই এই মন্তব্যের প্রসঙ্গ ওঠে। সকলের সামনে মন্ত্রীকে তীব্র ভর্ৎসনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "জুনের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। এমনভাবে ক্ষমা চাইবে যেন জুন আমায় ফোন করে বলে যে তুমি তাঁর কাছে ক্ষমা চেয়েছ।"

তবে শুধু জুন কেন? দেব, নুসরত, মিমি, সন্ধ্যা রায়, মুনমুন এঁদের কারও কাছে ক্ষমা চাইতে বলেননি কেন, এই নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তৃণমূলের এক বিধায়কের কথায়, জুন যেহেতু পশ্চিম মেদিনীপুরেরই প্রতিনিধি এবং বিধানসভার সদস্য তাই আগাম 'ঝামেলা' এড়াতে এই নির্দেশ।

এর আগে এদিন সকালেই মন্ত্রী শ্রীকান্ত মাহাতোর নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে রাজ্য সরকার। তাঁর মন্ত্রিত্বও কেড়ে নেওয়া হবে বলে জল্পনা উঠেছিল।

ঠিক কী বলেছিলেন মাহাতো, যার জন্য এত ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী? গত সপ্তাহে ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে(এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি পিপলস্ রিপোর্টার) মাহাতোকে বলতে দেখা যায়, "মমতা দিদি চোর, জোচ্চোর, খারাপ লোকদের কথা শুনে চলেন এবং তাঁদেরকেই দলের সম্পদ বলেন তিনি। দেবাদিদেব মহাদেব, মুনমুন, জুন মালিয়া, নুসরৎ, মিমিঝিমি, সন্ধ্যা রায়, সায়নী, সায়ন্তিকা, নেপাল সিংহ, সন্দীপ সিংহ, উত্তরা সিংহ - যারা দলকে লুটেপুটে খাচ্ছে তাঁরা যদি সম্পদ হয়, তাহলে তো আর পার্টি করা যাবে না।"

জুন মালিয়া, মমতা ব্যানার্জি এবং শ্রীকান্ত মাহাতো
মন্ত্রী মাহাতোর নিরাপত্তা তুললো রাজ্য - সেলিব্রিটি নেতাদের বিরুদ্ধে মুখ খোলায় যেতে পারে মন্ত্রিত্বও

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in