কলকাতা কর্পোরেশনে অহেতুক প্রবেশ নিষেধ - ফিরহাদ হাকিম

সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রশাসকমণ্ডলীর পক্ষে দায়িত্বপ্রাত মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ জানিয়েছেন, করোনার সময় মানুষ যাতে অহেতুক কর্পোরেশনের মধ্যে প্রবেশ না করেন, তার জন্যেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
কলকাতা কর্পোরেশনে অহেতুক প্রবেশ নিষেধ - ফিরহাদ হাকিম
কলকাতা পুরসভার প্রবেশপথে বিশেষ চেকিংনিজস্ব চিত্র

এখন থেকে কলকাতা কর্পোরেশন কেউ আর অহেতুক প্রবেশ করতে পারবেন না। এই বিষয়ে কলকাতা কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে নোটিশ জারি করা হয়েছে। ‌তা নিয়ে এদিন আরো একবার মুখ খুললেন ফিরহাদ হাকিম। তাঁর কথায়, করোনার কারণে এই সতর্কতা নেওয়া হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রশাসকমণ্ডলীর পক্ষে দায়িত্বপ্রাত মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ জানিয়েছেন, করোনার সময় মানুষ যাতে অহেতুক কর্পোরেশনের মধ্যে প্রবেশ না করেন, তার জন্যেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এখন অনলাইনের মাধ্যমেই বেশিরভাগ পরিষেবা পাচ্ছেন গ্রাহকরা। তাই বারবার কর্পোরেশনের আসার কোনো যুক্তিই নেই।

তিনি আরো জানিয়েছেন, অনেক সময় দেখা যায় কর্পোরেশনের ভেতরে এসে এমনি এমনিই বসে আছেন অনেকে। তাঁরা যেন ভিতরে প্রবেশ না করতে পারে তার জন্য অনেক নিয়ম-কানুন করে দেওয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট প্রমাণপত্র এবং আই কার্ড দেখিয়ে তবেই ভেতরে প্রবেশ করা যাবে বলে জানালেন ফিরহাদ হাকিম।

সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করে রাজ‍্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, দিলীপ ঘোষ অন্য কাউকে কিছু বলার আগে নিজের দল নিয়ে কথা বলুন। ভোটের সময় যে বিপুল পরিমাণ টাকা খরচ করেছে বিজেপি সেই টাকা কোথা থেকে এসেছে এবং কোথায় কোথায় খরচা করা হয়েছে তা প্রকাশ করুন উনি।

কলকাতা পৌরসভার মেয়র তথা প্রশাসক মন্ডলীর চেয়ারম্যান থেকে শুরু করে অন্যান্য প্রশাসক মন্ডলীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করার ক্ষেত্রে আর মূল ফটক ব্যবহার করা যাবে না। মূল ফটক দিয়ে কেবলমাত্র মেয়র ও প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য এবং হায়ার অফিশিয়ালসরাই প্রবেশ করতে পারবেন ।

সাংবাদিকদের মূল ফটক দিয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে নাম এবং সচিত্র পরিচয় পত্র এন্ট্রি করে ঢুকতে হবে। ভিজিটরদের জন্য চ্যাপলিন সিনেমার বিপরীত দিকের গেট ব্যবহার করতে হবে এবং সে ক্ষেত্রে সঠিক কারণ দর্শিয়ে নাম নথিভুক্ত করে প্রবেশ করতে হবে। মেয়র বা প্রশাসক মন্ডলীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে গেলে তাদের দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকদের কাছ থেকে অ্যাপোয়েন্টমেন্ট নিতে হবে। যে কেউ কলকাতা পুরসভার প্রবেশ করে মেয়র প্রশাসকমন্ডলীর কোন সদস্যদের সঙ্গে এবং হায়ার অফিশিয়ালদের সঙ্গে দেখা করার সময় মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন না এবং কোন ছবি তুলতে পারবেন না। এ বিষয়ে একটি নোটিফিকেশন ইতিমধ্যেই কলকাতা পৌরসভার পক্ষ থেকে জারি করা হয়েছে।

শনিবার সকাল থেকেই সেই নোটিফিকেশন মেনে কাজ শুরু করেছে কলকাতা পুরসভার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তাকর্মী ও কলকাতা পুলিশ। ভুয়ো আইএএস পরিচয় দিয়ে কসবা ভ্যাকসিন কান্ড ইতিমধ্যেই যথেষ্ট বিব্রত করেছে কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমন্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম থেকে শুরু করে সমস্ত পুরপ্রশাসক এবং হায়ার অফিশিয়ালদের। তার জেরেই এবার থেকে কলকাতা পুরসভায় এন্ট্রি রেস্ট্রিকশন আরোপ হল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in