বিচারপতি মান্থার এজলাসে থাকার জের! সরকারি প্যানেল থেকে বাদ দুই তৃণমূলপন্থী আইনজীবী

আইনজীবী সৌগত মিত্র বলেন, 'মঙ্গলবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার এজলাসে আমি কেন হাজির হয়েছি, এই কারণে আমাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি না কোনও অপরাধ করেছি।'
সরকারি প্যানেল থেকে বাদ দুই তৃণমূলপন্থী আইনজীবী
সরকারি প্যানেল থেকে বাদ দুই তৃণমূলপন্থী আইনজীবীগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

রাজ্য সরকারি আইনজীবীর প্যানেল থেকে নাম বাদ পড়েছেন তৃণমূলপন্থী দুই আইনজীবীর! এঁদের মধ্যে একজন হলেন আইনজীবী মনিকা পণ্ডিত (Advocate Manika Pandit) এবং অন্যজন হলেন আইনজীবী সৌগত মিত্র (Advocate Saugata Mitra)। শুক্রবার, বিজ্ঞপ্তি জারি করে এ কথা জানিয়েছে 'দ্য অফিস অব লিগাল রিমেমব্রান্সার' (The Office of Legal Remembrancer)।  

কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার (Justice Rajasekhar Mantha) এজলাস বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তৃণমূলপন্থী আইনজীবীদের একাংশ। বিচারপতি মান্থার এজলাসে সোমবারের পর মঙ্গল এবং বুধবারও রাজ্যের একাধিক মামলায় আইনজীবীদের অনেকেই উপস্থিত হননি। ঘটনাচক্রে মঙ্গলবার সরকারি আইনজীবী হিসাবে বিচারপতি মান্থার এজলাসে হাজির ছিলেন মনিকা পণ্ডিত ও সৌগত মিত্র। সহকর্মী সরকারি আইনজীবীদের পদাঙ্ক অনুসরণ না করায়, তাঁদেরকে চরম মূল্য দিতে হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

'দ্য অফিস অব লিগাল রিমেমব্রান্সার' হল একটি সরকারি সংস্থা। যারা রাজ্য সরকারের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য আইনজীবীদের তালিকাভুক্তির বিষয়টি পরিচালনা করে থাকে।

ফলে স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে, তা হলে কি বিচারপতি মান্থার এজলাজে হাজিরার খেসারত দিতে হল আইনজীবী মনিকা পণ্ডিত ও সৌগত মিত্রকে? তবে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে দুই আইনজীবীকে সরিয়ে দেওয়ার কোনও কারণ জানানো হয়নি।

আইনজীবী সৌগত মিত্র বলেন, 'কোনও কারণ ছাড়াই আমাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তৃণমূলের লিগ্যাল সেলের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে আমার অনুরোধ, দয়া করে দেখুন কী চলছে! এ ভাবে লিগ্যাল সেল চলতে পারে না। বয়স্ক বিচারপ্রার্থীদের হয়ে রাজ্য সরকারের তরফে আমি উপস্থিত হয়েছিলাম। মঙ্গলবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার এজলাসে আমি কেন হাজির হয়েছি, এই কারণে আমাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি না কোনও অপরাধ করেছি।'

এদিকে, বিচারপতি মান্থার এজলাসের সামনে আইনজীবীদের বিক্ষোভের তদন্তের ঘটনায় কলকাতা হাইকোর্টে (The Calcutta High Court) তিন সদস্যের একটি দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া (The Bar Council of India)। এই দলে থাকবেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট রবীন্দ্র কুমার রাইজদা (Supreme Court Advocate Ravindra Kumar Raizda), এলাহাবাদ হাইকোর্টের বিচারপতি অশোক মেহতা (Allahabad High Court's Justice Ashok Mehta) এবং দিল্লি হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কমিটির সদস্য বন্দনা কৌর গ্রোভার (Delhi High Court Bar Association Executive Committee member Vandana Kaur Grover)। আগামী ১৭ জানুয়ারি, তদন্ত রিপোর্ট জমা দেবে এই প্রতিনিধি দল।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in