জমি মামলায় সৌরভ গাঙ্গুলী, হিডকো, রাজ্য সরকারের জরিমানা - আইনের ঊর্ধ্বে কেউ নয় - মন্তব্য হাইকোর্টের

রাজ‍্য সরকার ক্ষমতার স্বেচ্ছাচারিতা করছে অভিযোগ তুলে আদালত বলে, এই বিষয়ে গাইড করার জন্য একটি সংজ্ঞায়িত নীতি থাকা দরকার যাতে Pick and choice ফর্মুলা প্রয়োগের মাধ্যমে ক্ষমতার স্বেচ্ছাচারিতা না হয়।
জমি মামলায় সৌরভ গাঙ্গুলী, হিডকো, রাজ্য সরকারের জরিমানা - আইনের ঊর্ধ্বে কেউ নয় - মন্তব্য হাইকোর্টের
সৌরভ গাঙ্গুলীফাইল চিত্র সংগৃহীত

হিডকো জমি মামলায় সৌরভ গাঙ্গুলিকে জরিমানা করলো কলকাতা হাইকোর্ট। পাশাপাশি রাজ‍্য সরকার ও হিডকোকেও জরিমানা করেছে আদালত। সৌরভ গাঙ্গুলিকে ১০ হাজার টাকা এবং রাজ‍্য সরকার ও হিডকো প্রত‍্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

নিউটাউন এলাকায় একটি স্কুল স্থাপনের জন্য বেআইনিভাবে জমি দিয়েছিল রাজ‍্য নিয়ন্ত্রণাধীন সংস্থা হিডকো (WBHIDCO)। সেই মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ এই জরিমানা ঘোষণা করেছে। জরিমানার অর্থ রাজ‍্য লিগ‍্যাল সার্ভিসেস অথরিটির কাছে জমা দিতে বলেছে আদালত।

বেঞ্চ তার আদেশে বলেছে, প্লট বরাদ্দ বাতিল করার দরকার নেই আমাদের। কারণ ইতিমধ্যেই সেই জমি ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। জমি সংক্রান্ত মামলায় সুপ্রিম কোর্ট নির্ধারিত যে আইন রয়েছে রাজ‍্য সরকার তা মানেনি। আমরা রাজ‍্য ও WBHIDCO (West Bengal Housing Infrastructure Development Corporation) প্রত‍্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করছি।

ভারতিয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির জরিমানা ঘোষণা করার সময় আদালত বলে, আমরা গাঙ্গুলি এডুকেশন অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলিকেও ১০ হাজার জরিমানা করছি। দেশ সবসময় খেলোয়াড়দের পাশে থাকে, বিশেষ করে আন্তর্জাতিক স্তরে যারা দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। ক্রিকেটের দুনিয়ায় সৌরভ গাঙ্গুলি দেশকে গর্বিত করেছেন। পাশাপাশি এটাও সত্য যে আইনের ঊর্ধ্বে কেউ নয়। সুপ্রিম কোর্টের আইন অনুযায়ী কাজ করা উচিত ছিল তাঁদের।

রাজ‍্য সরকার ক্ষমতার স্বেচ্ছাচারিতা করছে এই অভিযোগ তুলে আদালত আরও বলে, জমি বরাদ্দ বিষয়ে গাইড করার জন্য একটি সংজ্ঞায়িত নীতি থাকা দরকার যাতে Pick and choice ফর্মুলা প্রয়োগের মাধ্যমে ক্ষমতার স্বেচ্ছাচারিতা না হয়।

বেঞ্চ জানিয়েছে, এই বেআইনি বরাদ্দের জন্য দায়ী ব‍্যক্তিদের কাছ থেকে খরচ হয়ে যাওয়া অর্থ আদায় করতে পারে রাজ‍্য সরকার এবং হিডকো।

নিউটাউনের সিটি সেন্টার ২ এলাকায় ICSE বোর্ডের একটি স্কুল করতে চেয়েছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। হিডকোর তরফ থেকে সেই জমি বরাদ্দ করা হয় তাঁকে। ২০১৬ সালে এই প্লট বরাদ্দকে চ‍্যালেঞ্জ করে PIL দায়ের‌ করা হয় কলকাতা হাইকোর্টে। আবেদনে বলা হয়েছিল, প্লট বরাদ্দের জন্য কোনো দরপত্র ডাকা হয়নি। এমনকি নির্দিষ্ট মূলের অনেক কম দামে জমি দেওয়া হয়েছে সৌরভ গাঙ্গুলিকে। এই বিতর্ক শুরু হওয়ার পর ২০২০ সালে সেই জমি সরকারকে ফিরিয়ে দেন গাঙ্গুলি।

-With IANS Inputs

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in