অশান্তি ঠেকাতে আন্তরিক নয় - কমিশনের নিস্ক্রিয়তা নিয়ে সরব বাম কংগ্রেস, অভিযোগ মীনাক্ষী মুখার্জিরও

নন্দীগ্রামের বাম প্রার্থী মীনাক্ষী মুখার্জি জানান - “কমিশনের ভূমিকায় খুব একটা খুশি নই। ১৪৪ ধারা থাকা সত্বেও কিভাবে বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে জমায়েত হয়! বারবার বলা সত্বেও কমিশন সদর্থক ভূমিকা পালন করেনি”
অশান্তি ঠেকাতে আন্তরিক নয় - কমিশনের নিস্ক্রিয়তা নিয়ে সরব বাম কংগ্রেস, অভিযোগ মীনাক্ষী মুখার্জিরও
বৃহস্পতিবার ভোটের পর নির্বাচন কমিশনের দপ্তরে সাংবাদিক বৈঠকে রবীন দেব সহ বাম নেতৃত্বনিজস্ব চিত্র

কমিশনের নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে অভিযোগ তুলল সংযুক্ত মোর্চা। তাঁদের দাবি বহু অভিযোগ তথ্য সহ কমিশনকে দেওয়া সত্বেও কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। সিপিআই(এম) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রবীন দেব এবং প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী একই সুরে নির্বাচন কমিশনের পক্ষপাতিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

রবীন দেবের কথায় - বহু জায়গায় সকাল থেকে ভোট লুঠে নেমেছিল বিজেপি ও তৃণমূল। বারবার তথ্য দিয়ে অভিযোগ জানানো হয়েছে। দিনের শেষে দেখা গেছে কমিশন অশান্তি ঠেকাতে যথেষ্ট আন্তরিক নয়। অশান্তি ঠেকাতে যে কমিশন ব্যর্থ ঠারে ঠোরে বুঝিয়ে দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীও। দ্বিতীয় দফার ভোটে অশান্তির সমস্ত দায় কমিশনের ঘাড়েই চাপিয়েছেন তিনি।

নন্দীগ্রামে নির্বাচনের পর সাংবাদিক সম্মেলনে মীনাক্ষী মুখার্জি
নন্দীগ্রামে নির্বাচনের পর সাংবাদিক সম্মেলনে মীনাক্ষী মুখার্জিনিজস্ব চিত্র

কমিশনের ভূমিকায় প্রশ্ন তুলেছেন নন্দীগ্রামের সিপিআই(এম) প্রার্থী মীনাক্ষী মুখার্জিও। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন - “কমিশনের ভূমিকায় খুব একটা খুশি নই। ১৪৪ ধারা জারি থাকা স্বত্বেও কিভাবে বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে জমায়েত হয়! বারবার বলা সত্বেও কমিশন সদর্থক ভূমিকা পালন করেনি”।

প্রসঙ্গত, সিপিআই(এম) প্রার্থী মীনাক্ষী মুখার্জি ভোটের দিন সকাল থেকে নন্দীগ্রামের বুথে বুথে পরিদর্শন করা শুরু করেন। বেশ কিছু অনিয়ম তাঁর চোখে পড়ে। কখনও জানলার কাছে ইভিএম মেশিন সরিয়েছেন, কখনও বা হুমকির মুখে পড়া দলীয় এজেন্টকে নিজে উপস্থিত থেকে ভোটকেন্দ্রে বসিয়ে এসেছেন, আবার কখনও ভোটকেন্দ্রে অবাঞ্ছিত জমায়েত সরিয়েছেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর সহযোগিতায়। সবমিলিয়ে মমতা ব্যানার্জি ও শুভেন্দুর হাইভোল্টেজ রেষারেষির পাশেও মীনাক্ষী জায়গা করে নিয়েছেন রাজ্য রাজনীতিতে। যা দেখে বেশ উৎসাহিত সাধারণ বাম কর্মী সমর্থকরা।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in