Calcutta Medical College: অনির্দিষ্টকালের জন্য আমরণ অনশনে মেডিক্যাল পড়ুয়ারা

রণবীর, সাবিত, কৌশিক, ঋতম ও প্রত্যুষ এই ৫ জন আমরণ অনশন চালাচ্ছে। দাবি যতক্ষণ না পর্যন্ত পূরণ হচ্ছে অনশন উঠবে না। আন্দোলনকারী এক ছাত্র জানায়, আধিকারিকরাই প্রথমে নোটিশ দিয়েছিলেন ২২ ডিসেম্বর নির্বাচন হবে।
অনির্দিষ্টকালের জন্য আমরণ অনশন
অনির্দিষ্টকালের জন্য আমরণ অনশনছবি - নিজস্ব

ছাত্র সংসদ নির্বাচনে এখনও অনড় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের পড়ুয়ারা। বুধবার আমরণ অনশনের ডাক দেন পড়ুয়ারা। শুক্রবার অর্থাৎ আজ থেকে ‘অনির্দিষ্টকাল’-র জন্যই অনশন চলবে বলে ছাত্ররা জানিয়েছে।

আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা জানায়, তিনটি বিষয়ে আমাদের সমাধান চাই। প্রথমত নির্বাচন ২২ ডিসেম্বরেই করতে হবে। চিকিৎসা পরিষেবা আমাদের আন্দোলনের জন্য ব্যাহত হয়নি – এই কথা কর্তৃপক্ষকে সকলের সামনে বলতে হবে। আর আমাদের বিক্ষোভের ওপর যাঁরা হামলা চালিয়েছেন তাঁদের শাস্তি চাই।

রণবীর, সাবিত, কৌশিক, ঋতম ও প্রত্যুষ এই ৫ জন আমরণ অনশন চালাচ্ছে। দাবি যতক্ষণ না পর্যন্ত পূরণ হচ্ছে অনশন উঠবে না। আন্দোলনকারী একজন ছাত্র সংবাদমাধ্যমকে জানায়, আধিকারিকরাই প্রথমে নোটিশ দিয়েছিলেন ২২ ডিসেম্বর নির্বাচন হবে। কিন্তু তা হঠাৎ বাতিল করে দেওয়া হল। কী কারণে বাতিল তার লিখিত আমাদেরকে দিতে হবে। আমরা কর্তৃপক্ষের কাছে আশাবাদী।

মঙ্গলবার পড়ুয়ারা ঘেরাও তুলে নিয়ে বিবৃতিত দেয়। সেখানে বলা হয়, "সেই কথা মাথায় রেখে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই ঘেরাও আমরা তুলে নিচ্ছি কিন্তু আমাদের আন্দোলনের এখানেই শেষ নয়। আমরা অথোরিটিকে ৭/১২/২২ এর দুপুর ২টো অবধি সময় দিচ্ছি যদি তারা পূর্বনির্ধারিত ২২শে ডিসেম্বরের ভোটের SOP না দিতে পারেন, আমরা বৃহত্তর আন্দোলন তথা আমরণ অনশনের পথে অগ্রসর হবো'।

সোমবার দুপুর থেকেই কলেজের বিভিন্ন অধ্যক্ষ সহ বিভাগীয় প্রধানদের আটক করে বিক্ষোভ দেখায় পড়ুয়ারা। মঙ্গলবার বিকেলে নার্সিং সুপার এবং ৩ জন শিক্ষিকাকে ছেড়ে দিলেও বাকিদের প্রশাসনিক ব্লকে আটকে রাখার অভিযোগ ওঠে পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে। কিন্তু মঙ্গলবার গভীর রাতে ওই ব্লকের গেট খুলে দেওয়া হয়। মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ-সহ বিভাগীয় প্রধানকে ছেড়ে দেন তাঁরা।

অনির্দিষ্টকালের জন্য আমরণ অনশন
SSC Scam: বয়সসীমা পেরিয়ে যাওয়ার পরেও নিয়োগ ১২ জনের! হাইকোর্টে মামলা দায়ের চাকরিপ্রার্থীদের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in