২৮শে ফেব্রুয়ারি ব্রিগেড সমাবেশের লক্ষ্যে বাম-কংগ্রেস-ISF এর যৌথ আবেদনপত্র প্রকাশ
বাম-কংগ্রেস-ISF এর যৌথ আবেদনপত্র প্রকাশফাইল ছবি

২৮শে ফেব্রুয়ারি ব্রিগেড সমাবেশের লক্ষ্যে বাম-কংগ্রেস-ISF এর যৌথ আবেদনপত্র প্রকাশ

এবারের ব্রিগেডে শুধু বাম-কংগ্রেস নয়, উপস্থিত থাকছে সদ্য তৈরি হওয়া “ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট”ও

২৪শে ফেব্রুয়ারি, কলকাতা- বিধানসভা নির্বাচন আসন্ন। বিজেপি-তৃণমূলের পাশাপাশি বাম-কংগ্রেসও কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে। বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে ২৮শে ফেব্রুয়ারি ব্রিগেডের চূড়ান্ত প্রস্তুতি চলছে। এবারের ব্রিগেডে শুধু বাম-কংগ্রেস নয়, উপস্থিত থাকছে সদ্য তৈরি হওয়া “ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট”ও। সেই মর্মে যৌথ আবেদনও প্রকাশ করা হয়েছে বাম- কংগ্রেস- ISF এর তরফ থেকে।

যৌথ আবেদনে স্বাক্ষর করেছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু, সিপিআই (এম) রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র, সিপিআই রাজ্য সম্পাদক স্বপন ব্যানার্জি, ফরোয়ার্ড ব্লকের নরেন চ্যাটার্জি, আর এস পি-র রাজ্য সম্পাদক বিশ্বনাথ চৌধুরী। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে স্বাক্ষর করেছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী এবং ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্টের সভাপতি শিমুল সোরেন।

আবেদন পত্রে তৃণমূল ও বিজেপিকে একযোগে আক্রমণ করে বলা হয়েছে- বিজেপি যেমন সারা দেশে সাম্প্রদায়িক বিষ ছড়াচ্ছে, তৃণমূল একইভাবে রাজ্যে সাম্প্রদায়িক কার্ড ব্যবহার করছে। তাই ধর্মনিরপেক্ষতা রক্ষা করতে এই উভয় শক্তিকে পরাস্ত করতে হবে। বিকল্প শক্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বৃহত্তর ঐক্য প্রয়োজন। আবেদন পত্রে উঠে এসেছে কৃষি আইন, শ্রম কোড বাতিলের দাবি। লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশা, লাগামছাড়া বেসরকারিকরণ, মূল্যবৃদ্ধি, বেকারত্ব নিয়েও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আঙুল তোলা হয়েছে এই যৌথ আবেদনে পত্রে।

সম্প্রতি নবান্ন অভিযানে বাম কর্মী মইদুল ইসলাম মিদ্যার মৃত্যু নিয়ে রাজ্য সরকারকে তীব্র আক্রমণ করা হয়েছে। সবশেষে যৌথ আবেদনপত্রে ২৮ শে ফেব্রুয়ারি ব্রিগেড সমাবেশে যোগ দেওয়ার আহ্বান করা হয়েছে। নেতৃত্বের দাবি ঐতিহাসিক ব্রিগেড সমাবেশ হতে চলেছে ঐদিন। নেতৃত্বের অনুমান কমপক্ষে ৭ লক্ষ মানুষের সমাগম হবে ঐদিন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in