মুখ্যমন্ত্রীর ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করে নন্দীগ্রাম মামলা থেকে সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ

মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে বিচারপতি বলেন, বিচারপতিদেরও রাজনৈতিক পছন্দ থাকতে পারে, তাঁরাও গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেন। এভাবে বিচারপতি নিয়োগ সংক্রান্ত রিপোর্ট জনসমক্ষে এনে উনি ঠিক করেছেন?
মুখ্যমন্ত্রীর ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করে নন্দীগ্রাম মামলা থেকে সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ
ফাইল ছবি

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ঘোষণা করলেন হাইকোর্টের বিচারপতি কৌশিক চন্দ। বিচারপতিকে অপমান ও বিচারবিভাগকে কলুষিত করার জন্য এই জরিমানা ঘোষণা করা হয়েছে। তবে মুখ্যমন্ত্রীর দাবিকে মান‍্যতা দিয়ে নন্দীগ্রাম মামলা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ। ১২ টার কিছু আগে তিনি নিজেই এই রায় ঘোষণা করেছেন।

নন্দীগ্রামে ভোটের ফল গণনায় কারচুপির অভিযোগ তুলে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন এই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী তথা রাজ‍্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোট পুনর্গণনার দাবি তোলেন তিনি। মামলাটি বিচারপতি কৌশিক চন্দের এজলাসে উঠতেই ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির কাছে মামলা অন‍্যত্র সরানোর দাবি তোলেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, বিচারপতি চন্দের সাথে বিজেপির সুসম্পর্ক রয়েছে, ফলে মামলার রায় নিরপেক্ষ হবে না।

সোমবারই জানানো হয়েছিল, বুধবার মামলা অন‍্যত্র সরানোর মুখ্যমন্ত্রীর আবেদনের রায় ঘোষণা করা হবে। সেইমতো আজ বেলা পৌনে ১২ নাগাদ বিচারপতি চন্দ জানান, তিনি মামলা থেকে সরে যাচ্ছেন। তবে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগের কারণে তিনি সরছেন না। বিষয়টি নিয়ে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে তা এড়ানোর জন্যই তিনি সরে যাচ্ছেন।

সেইসঙ্গে তিনি বলেন, স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে তাঁকে স্বীকৃতি দেওয়ার ক্ষেত্রে আপত্তি প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতে বিচারপতি ও বিচারব্যবস্থার মানহানি হয়েছে। তাই মুখ্যমন্ত্রীকে পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হলো।

তিনি আরো জানিয়েছেন, এই টাকা রাজ‍্যের‌ বার কাউন্সিলে জমা দিতে হবে, যা পরবর্তীকালে কোভিড চিকিৎসায় ব্যবহৃত হবে।

মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে‌ বিচারপতি আরও বলেন, আমার সাথে একটি রাজনৈতিক দলের গভীর সম্পর্ক রয়েছে, তাই মামলাটি ছেড়ে দেওয়া উচিত, সাধারণ মানুষ এই অভিযোগের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। এটা বিচারপতি ঠিক করবেন। বিচারপতিদেরও রাজনৈতিক পছন্দ থাকতে পারে, তাঁরাও গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেন। এভাবে বিচারপতি নিয়োগ সংক্রান্ত রিপোর্ট জনসমক্ষে এনে উনি ঠিক করেছেন?

মুখ্যমন্ত্রীকে জরিমানার নির্দেশের বিরুদ্ধে উচ্চতর আদালতে যেতে পারে রাজ‍্যের শাসকদল।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in