ED: দিল্লিতে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ এড়ালেন রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতার বাড়িতে আসার আর্জি
রুজিরা ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ফাইল ছবি সংগৃহীত

ED: দিল্লিতে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ এড়ালেন রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতার বাড়িতে আসার আর্জি

তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় ইডি-র হাজিরা এড়ালেন। বুধবার দিল্লিতে ইডি-র আধিকারিকদের সামনে কয়লা পাচার এবং আর্থিক দুর্নীতির তদন্তে তাঁর হাজিরা দেবার কথা ছিলো

তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় ইডি-র হাজিরা এড়ালেন। বুধবার দিল্লিতে ইডি-র আধিকারিকদের সামনে কয়লা পাচার এবং আর্থিক দুর্নীতির তদন্তে তাঁর হাজিরা দেবার কথা ছিলো। যদিও এদিন তিনি জানিয়েছেন, মহামারি পরিস্থিতিতে তাঁর পক্ষে দিল্লিতে গিয়ে হাজিরা দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ দুই শিশু সন্তানের ‘মা’।

ইডি-র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টরকে লেখা এক চিঠিতে রুজিরা জানিয়েছেন, আমি দুই শিশুর মা এবং মহামারির সময় একা একা দিল্লিতে যাওয়া আমার পক্ষে সম্ভব নয়। কারণ এই পরিস্থিতিতে দিল্লি গেলে আমি এবং আমার সন্তানদের ক্ষতির আশঙ্কা থেকে যায়। যদি আমাকে কলকাতায় আমার বাড়িতে জিজ্ঞাসাবাদের ব্যবস্থা করা হয় তাহলে তা আমার পক্ষে সুবিধাজনক।

৩১ আগস্ট লেখা ওই চিঠিতে তিনি আরও জানিয়েছেন, আমি আমার দিক থেকে সবরকম সহযোগিতা করবো।

এর আগে রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তাঁর বাড়িতেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিলো। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি, রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের মুখে সিবিআই আধিকারিকরা তাঁর বাড়িতে গিয়েই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। ওইদিনই রুজিরার সঙ্গে তাঁর পরিবারের সদস্যদের এবং তাঁর বোনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সাংসদ ছাড়াও তৃণমূল কংগ্রেসের জাতীয় সাধারণ সম্পাদক। এর আগে কয়লা পাচার কান্ডে তাঁকে তাঁর স্ত্রীর সঙ্গেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আগামী ৬ সেপ্টেম্বর ডায়মন্ডহারবারের তৃণমূল সাংসদকে দিল্লিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজিরা দেবার নির্দেশ দিয়েছে তদন্তকারী সংস্থা। যদিও তাঁর স্ত্রীর হাজিরা দেবার কথা ছিলো আজ ১ সেপ্টেম্বর। আইনজীবী সঞ্জয় বসুকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে ৩ সেপ্টেম্বর।

উল্লেখ্য, প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট ()-এর একাধিক ধারায় ইডি এই মামলা করেছে। গত নভেম্বর ২০২০-তে সিবিআই-এর দায়ের করা এক এফ আই আরের ভিত্তিতে এই মামলা করা হয়। যেখানে সিবিআই অভিযোগ করেছে পশ্চিমবঙ্গের আসানসোল অঞ্চলের কাজোরা এবং কুনুতোরিয়ায় ইস্টার্ন কোলফিল্ডস লিমিটেডের খনি থেকে কয়েক কোটি টাকার কয়লা পাচারের। ইডির দাবি অনুসারে এই অবৈধ কয়লা পাচার থেকে প্রাপ্ত অর্থ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় অন্যতম প্রধান সুবিধাভোগী। যদিও তৃণমূল নেতা ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in