করোনা সংক্রমণের ধাক্কায় ব্যাহত রেল পরিষেবা, বাতিল লোকাল সহ বহু ট্রেন

পূর্ব রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, আজ হাওড়া ডিভিশনে বাতিল থাকছে ১৬ প্যাসেঞ্জার ট্রেন, ১৯ জোড়া ইএমইউ লোকাল, শিয়ালদহ ডিভিশনের ৩৩ জোড়া ইএমইউ। হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনে কোভিড পজিটিভ রেল কর্মীদের সংখ্যা বাড়ছে।
করোনা সংক্রমণের ধাক্কায় ব্যাহত রেল পরিষেবা, বাতিল লোকাল সহ বহু ট্রেন
ছবি প্রতীকী ইউটিউব থেকে সংগৃহীত

গতকালই প্রায় ৯০ জন রেলকর্মী করোনা আক্রান্ত হওয়ায় ৫৬টি ট্রেন বাতিল করা হয়েছিল পূর্ব রেলের শিয়ালদহ শাখায়। আজও হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনে বাতিল একাধিক লোকাল ও প্যাসেঞ্জার ট্রেন।

পূর্ব রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, আজ হাওড়া ডিভিশনে বাতিল থাকছে ১৬ প্যাসেঞ্জার ট্রেন, ১৯ জোড়া ইএমইউ লোকাল, শিয়ালদহ ডিভিশনের ৩৩ জোড়া ইএমইউ। হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনে কোভিড পজিটিভ রেল কর্মীদের সংখ্যা বাড়ছে। তাই ট্রেন বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

হাওড়া ডিভিশনে বাতিল হওয়া প্যাসেঞ্জার ট্রেন হল, ৬৩০৫১ আজিমগঞ্জ-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার, ৬৩৫৮২ রামপুরহাট-বর্ধমান প্যাসেঞ্জার, ৫৩০৩১ আজিমগঞ্জ-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার, ৫৩০২৪ রামপুরহাট-আজিমগঞ্জ প্যাসেঞ্জার, ৬৩০৩৩ আজিমগঞ্জ-নৈহাটি প্যাসেঞ্জার, ৬৩০৩৪ নৈহাটি-আজিমগঞ্জ প্যাসেঞ্জার, ৬৩০৩২ আজিমগঞ্জ-কাটোয়া প্যাসেঞ্জার, ৬৩০৩১ কাটোয়া-আজিমগঞ্জ প্যাসেঞ্জার, ৬৩০১১ বর্ধমান-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার, ৬৩০২০ আজিমগঞ্জ-কাটোয়া প্যাসেঞ্জার, ৬৩০১৯ কাটোয়া-আজিমগঞ্জ প্যাসেঞ্জার, ৬৩০২২ রামপুরহাট-আজিমগঞ্জ প্যাসেঞ্জার, ৩৫০২১ বর্ধমান-কাটোয়া প্যাসেঞ্জার, ৩৫০১২ কাটোয়া-বর্ধমান প্যাসেঞ্জার, ৩৭৭৮৬ বর্ধমান-ব্যান্ডেল প্যাসেঞ্জার, ৩৭৭৮৫ ব্যান্ডেল-বর্ধমান প্যাসেঞ্জার। পাশাপাশি ৩৮টি লোকাল বাতিল করা হল।

অন্যদিকে, শিয়ালদহ ডিভিশনে বাতিল হয়েছে শিয়ালদহ-ব্যারাকপুর সেকশনে ৫ জোড়া, শিয়ালদহ-দত্তপুকুর-হাবড়া-বনগাঁ সেকশনে ৫ জোড়া, শিয়ালদহ-নৈহাটি সেকশনে ৪ জোড়া। শিয়ালদহ-ডানকুনি, দমদম ক্যান্টনমেন্ট সেকশনে ১ জোড়া করে, নৈহাটি-রাণাঘাট ও হাসনাবাদ সেকশনে ১ জোড়া করে। শিয়ালদহ-কল্যাণী সেকশনে ১ জোড়া, শিয়ালদহ-বারুইপুর সেকশনে ২ জোড়া, শিয়ালদহ-ক্যানিং সেকশনে ৪ জোড়া, শিয়ালদহ-সোনারপুর-ডায়মন্ডহারবার সেকশনে ৪ জোড়া, শিয়ালদহ-বারুইপুর-লক্ষীকান্তপুর সেকশনে ২ জোড়া করে ও চক্ররেল ১ জোড়া।

পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক একলব্য চক্রবর্তী জানিয়েছেন, যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে তার জেরে এই সিদ্ধান্ত নিতে হল। সূত্রের খবর, বাতিলের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে৷

গত বছর মার্চ মাসে লকডাউন শুরু থেকে ট্রেন পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফের ট্রেন চালু হয় গত বছরের শেষে ১১ নভেম্বর থেকে। ২০২০ সালের শেষ থেকে চলতি বছরের শুরুতে করোনা সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে ছিল। কিন্তু মার্চ মাসের শেষ থেকে তা ক্রমশ বাড়তে থাকে। বর্তমানে করোনা সংক্রমণে ভারত বিশ্বে এক নম্বর স্থানে চলে এসেছে। দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণ পৌঁছেছে ২ লক্ষ ৯৫ হাজারে। একদিনে আক্রান্তের নিরিখে এই সংখ্যা বিশ্বেও সর্বোচ্চ। এ বছর ৮ জানুয়ারি আমেরিকায় একদিনে আক্রান্ত হয়েছিলেন ২ লক্ষ ৮৯ হাজার ১৯৫ জন। দৈনিক মৃত্যুর নিরিখেও দেশে নতুন রেকর্ড হল আজ। একদিনে মৃত্যু ২ হাজার ছাড়িয়ে গেল। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২৩ জনের।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.