Dilip Ghosh: তৃণমূলে একজনই পুরুষ, বাকি সব মহিলা - দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে ফের বিতর্ক
শুক্রবার সকালে ইকোপার্কে দিলীপ ঘোষ নিজস্ব চিত্র

Dilip Ghosh: তৃণমূলে একজনই পুরুষ, বাকি সব মহিলা - দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে ফের বিতর্ক

অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বিজেপি ত্যাগ প্রসঙ্গে সায়নী বলেন, কোনও মহিলার পক্ষেই বিজেপিতে থাকা সম্ভব নয়৷ বিজেপি নারীবিদ্বেষী দল। সায়নীর এই মন্তব্যের পালটা জবাব দেন দিলীপ ঘোষ।

ফের বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এবার মহিলাদের নাম জড়িয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করলেন তিনি। মূলত তাঁর নিশানায় ছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে কটাক্ষ করতে গিয়ে দিলীপের বক্তব্য, ‘তৃণমূলে একজনই পুরুষ আছেন, বাকি সবাই তো মহিলা।’ তারপরই বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। তৃণমূলের পক্ষ থেকে দিলীপবাবুর এই বক্তব্যে নারী বিদ্বেষী মনোভাব প্রকাশ পাচ্ছে বলে দাবি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বিজেপি ত্যাগ প্রসঙ্গে সায়নী বলেন, কোনও মহিলার পক্ষেই বিজেপিতে থাকা সম্ভব নয়৷ বিজেপি নারীবিদ্বেষী দল। সায়নীর এই মন্তব্যের পালটা জবাব দিতে গিয়েই দিলীপ ঘোষ শুক্রবার প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে বলেন, সায়নী ঘোষ নিজেকে কি পুরুষ মনে করেন নাকি?

এদিন সকালে তথাগত রায় সম্পর্কে দিলীপ ঘোষ বলেন, পার্টিতে যাঁর পদাধিকার, গুরুত্ব আছে, তিনি কিছু বললে দলের ক্ষতি হয়। অনেকে অনেক কথা বলছেন, রাস্তায় থেকে বলছেন - তাতে লোকেরা গুরুত্ব দেয় না। কিন্তু পদাধিকারীরা এমন কথা বললে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়। কিন্তু যিনি কোনো পদেই নেই তাঁর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা হবে!

শ্রাবন্তী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাজনীতিতে দেখা হয় পরিচিত মুখ কি না, মানুষ কতটা চেনেন। তাই দল নিয়েছে। টিএমসিও একই কাজ করেছে। পার্টিও নির্বাচনের আগে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। তারকা বলেই তো গুরুত্ব দেওয়া হয়। রাজনীতিতে অনেক কিছু করতে হয়, কখনও সফল হয়, কখনও হয় না।

বিজেপিতে সেলিব্রিটি যোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এদের কত দিন রাস্তায় দেখা যায়! এদের কখনও রাস্তায় দেখেছেন? কার্যকর্তারা রাস্তায় মার খাচ্ছেন… এটা হচ্ছে রাজনীতি। কেউ ভাবে বাড়ি বসে থাকব, দল এসে মালা চড়াবে এটা হয় না। লকেটও তো সিনেমায় ছিল। তিনি পার্টিতে এসেছেন লড়াই করেছেন, দল গুরুত্ব দিয়েছে। নেত্রী হয়েছেন। মানুষ কেন ভোট দেবেন? যারা করছেন তাদের ভোট দিচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, তৃণমূল নেতাদের অনুষ্ঠানে যাচ্ছে কারণ, ওখানে গেলে কাজ পাওয়া যায়। যারা যাচ্ছেন তাদের কোনও সিনেমায় অভিনয় করতে দেওয়া হয় না। তাই চলে যাচ্ছেন।

সায়নী ঘোষের মন্তব্য প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, উনি নি্জেকে কি মনে করেন! আমরা প্রথম মহিলা প্রতিরক্ষামন্ত্রী বিদেশ মন্ত্রী আমরা করেছি। চারজন মহিলা রাজ্যপাল আমরা করেছি। টিএমসিতে একজনই পুরুষ আছে, বাকি সব মহিলা।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in