Babul Supriyo: 'বিশ্বাসঘাতক' অথবা 'সম্পদ' - প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নিয়ে দ্বিমত বিজেপি নেতৃত্ব

‘ও তো প্রথম বিশ্বাসঘাতক নয়! শেষও নয়।’ শনিবার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে যোগ দেবার পর এভাবেই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা তথাগত রায়।
Babul Supriyo: 'বিশ্বাসঘাতক' অথবা 'সম্পদ' - প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নিয়ে দ্বিমত বিজেপি নেতৃত্ব
তৃণমূলে যোগ দিলেন বাবুল সুপ্রিয়ছবি এআইটিসি ফেসবুক পেজের সৌজন্যে

‘ও তো প্রথম বিশ্বাসঘাতক নয়! শেষও নয়।’ শনিবার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে যোগ দেবার পর এভাবেই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা তথাগত রায়।

গতকাল বিকেলে করা এক ট্যুইট বার্তায় তথাগত রায় আরও জানান – ‘পশ্চিমবঙ্গ বিজেপিকে বিপদে ফেলেছে বিশ্বাসঘাতকরা। বেচারা @SuPriyoBabul-র উপর রাগ করে আর কি হবে? ও তো প্রথম বিশ্বাসঘাতক নয় ! শেষও নয়। কিন্তু মতাদর্শ চিরন্তন। ব্যক্তিপূজা কখনো মতাদর্শকে হারাতে পারবে না। বিপদ কেটে যাবে।’

এদিন বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে যোগ দিলেও প্রায় দেড় মাস আগে তিনি নিজেই ফেসবুকে পোষ্ট করে রাজনীতি ছেড়ে দেবার কথা ঘোষণা করেছিলেন। সেই সময় বাবুল জানিয়েছিলেন রাজনীতিতে না থেকেও সমাজসেবা করা যেতে পারে। যদিও সেই অবস্থান থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে ফের রাজনীতির আঙিনায় পা রাখলেন বাবুল। তবে বিজেপির হয়ে নয়। তৃণমূলের হয়ে। রবিবার বিকেল ৩টেয় আবারও সাংবাদিকদের মুখোমুখি হবেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া বাবুল সুপ্রিয়।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, গতকাল তথাগত রায় তাঁর ট্যুইটে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গীতেই আরও একবার নিশানা করেছেন বিজেপি নেতৃত্বকে। বিগত নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হবার পর থেকে বিজেপিতে ভাঙন অব্যাহত। একের পর এক বিজেপি বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন। বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বর পক্ষে সেই ভাঙন আটকানো সম্ভব হচ্ছে না।

যদিও বাবুল সুপ্রিয় প্রসঙ্গে তথাগত রায়ের সঙ্গে সহমত নন বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত। তিনি এক ট্যুইটবার্তায় বাবুল সুপ্রিয়কে বিজেপির সম্পদ বলে অভিহিত করেন।

গতকাল বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে যোগ দেবার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও একবার ফিরে এসেছে বামেদের ‘বিজেমূল’ তত্ব। বামেরা ঘোষিত ভাবে এই শব্দবন্ধ থেকে নিজেদের সরিয়ে নিলেও বাম কর্মী সমর্থকরা যে সেই শব্দবন্ধ এখনও মন থেকেই বিশ্বাস করেন তা এদিন আরও একবার স্পষ্ট হয়ে গেছে। গতকালের একাধিক পোষ্টে বাবুলের উদ্দেশ্যে ধেয়ে এসেছে তীব্র আক্রমণ। সেখানে যেমন এসেছে ‘ঝালমুড়ি’ প্রসঙ্গ তেমনই উঠে এসেছে আসানসোল প্রসঙ্গ। এমনকি এক জনপ্রিয় পেস্ট-এর বিজ্ঞাপনের ট্যাগ লাইন তুলে এনেও আক্রমণ করা হয় বাবুলকে। যদিও গতকালের সাংবাদিক সম্মেলনে বাবুল সুপ্রিয় ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি এসবে গুরুত্ব দিচ্ছেন না।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.