TET Scam: আরও বিপাকে মানিক! প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতির নামে নিখোঁজ ডায়ারি হাইকোর্টের এসিপির

মঙ্গলবার যাদবপুর থানায় প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতির নামে নিখোঁজ ডায়ারি করেন হাইকোর্টের এসিপি। মানিককে খুঁজে বের করার নির্দেশ দেওয়া হয় এসিপিকে। নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গাঙ্গুলি।
মানিক ভট্টাচার্যর নামে নিখোঁজ ডায়ারি
মানিক ভট্টাচার্যর নামে নিখোঁজ ডায়ারিগ্রাফিক্স - আকাশ নেয়ে

প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়েছে। ডায়ারিটি করেছেন হাইকোর্টের এসিপি। বলা যেতে পারে সিবিআই দপ্তরে হাজিরা না দিয়ে বেকায়দায় পড়লেন মানিক ভট্টাচার্য।

পাঁচ সদস্যের দল নিয়ে এসিপি মানিকের বাড়িতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর খোঁজ পাননি। যার জেরে যাদবপুর থানায় প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতির নামে নিখোঁজ ডায়েরি করেন। মানিককে খুঁজে বের করার নির্দেশ দেওয়া হয় এসিপিকে। নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গাঙ্গুলি। সেই জন্যই এসিপি ডায়ারি করতে বাধ্য হন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার রাত ৮টার মধ্যেই মানিক ভট্টাচার্যকে সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট। হাজিরা না দিলে বা তদন্তে অসহযোগিতা করলে তাঁকে হেফাজতেও নিতে পারবে সিবিআই এমনটাই জানিয়েছিল আদালত। তবে সুপ্রিমকোর্টে একদিনের রক্ষাকবচ পান মানিক। কিন্ত দেশের শীর্ষ আদালত সিবিআই দপ্তরে হাজিরা নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

মঙ্গলবার টেট পরীক্ষার উত্তরপত্র নষ্ট মামলার শুনানি ছিল বিচারপতি অভিজিৎ গাঙ্গুলির সিঙ্গেল বেঞ্চে। অভিযোগ, ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষার মোট ১২ লক্ষ ওএমআর সিট (উত্তরপত্র) নষ্ট করা হয়েছে। ওই মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারপতি। এক মাসের মধ্যে তদন্তের রিপোর্ট জমা দিতে হবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে। আগামী ১ নভেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

আদালতের পর্যবেক্ষণ, অপরাধমূলক উদ্দেশ্য নিয়েই উত্তরপত্র নষ্ট করা হয়েছে। ওইসময় পর্ষদের সভাপতি ছিলেন নদীয়ার পলাশীপাড়ার বিধায়ক মানিক ভট্টাচার্য। শুনানি চলাকালীন ওএমআর সিট নষ্টের ঘটনায় মানিক ভট্টাচার্য এবং অন্যান্য আধিকারীকদের ভূমিকা নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করে আদালত। এরপরই মঙ্গলবার রাত ৮টার মধ্যে মানিক ভট্টাচার্যকে সিবিআই দপ্তরে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি গাঙ্গুলি।

মানিক ভট্টাচার্যর নামে নিখোঁজ ডায়ারি
'মাত্র ১০৭টা গণ্ডগোল হয়েছে' - ভুয়ো নিয়োগ বিতর্কে সাফাই মমতার, 'ধরা পড়ে গিয়েছে' - কটাক্ষ সুজনের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in