Uttarakhand: রাজ্যে রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য দায়ী BJP - আক্রমণে কংগ্রেস

কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা এক সাংবাদিক বৈঠকে জানান – ২০১৭ সালে উত্তরাখণ্ডে সরকার গঠন করে BJP। কিন্তু রাজ্যের উন্নয়নের বদলে ক্ষমতা দখলে রাখতে গত সাড়ে চার বছরে দুই মুখ্যমন্ত্রী বদল করা হয়েছে
Uttarakhand: রাজ্যে রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য দায়ী BJP - আক্রমণে কংগ্রেস
কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালাফাইল ছবি সংগৃহীত

গতকালই রাতে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন তীর্থ সিং রাওয়াত। শনিবার বিকেল ৩টেয় বিধায়ক দলের বৈঠকে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর নাম চূড়ান্ত করবে বিজেপি। আর মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের পরেই উত্তরাখণ্ডে রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য বিজেপিকে কাঠগড়ায় তুললো কংগ্রেস।

শনিবার কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা এক সাংবাদিক বৈঠকে জানান – ২০১৭ সালে উত্তরাখণ্ডে সরকার গঠন করে বিজেপি। কিন্তু রাজ্যের উন্নয়নের বদলে ক্ষমতা দখলে রাখতে গত সাড়ে চার বছরে দুই মুখ্যমন্ত্রীর বদল করা হয়েছে। রাজ্যে এখন মুখ্যমন্ত্রী বদলের খেলা চলছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডাকে আক্রমণের নিশানা করে কংগ্রেস মুখপাত্র বলেন, উত্তরাখণ্ডে রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য এঁরাই দায়ী। রাজ্যে শেষ সাড়ে চার বছরে দু’বার মুখ্যমন্ত্রী বদল করতে হয়েছে। এর আগেও উত্তরাখণ্ডে বিজেপি চারবার মুখ্যমন্ত্রী বদল করেছে। উত্তরাখণ্ড ছাড়াও দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, কর্ণাটকেও মুখ্যমন্ত্রী বদল করেছে বিজেপি। রাজ্যে ক্ষমতায় থাকার কোনো নৈতিক অধিকার নেই বিজেপির।

প্রসঙ্গত, এক বছরের মধ্যে তৃতীয় মুখ্যমন্ত্রী পেতে চলেছে উত্তরাখণ্ড। গতকালই দায়িত্ব নেবার মাত্র চার মাসের মধ্যে ইস্তফা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী তীর্থ সিং রাওয়াত। আজ বিকেল ৩ টেয় বিজেপি বিধায়কদলের বৈঠক ডাকা হয়েছে। সেখানেই ঠিক হবে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর নাম। সূত্র অনুসারে মুখ্যমন্ত্রী হতে পারেন সতপাল মহারাজ অথবা ধন সিং রাওয়াত। এই দুই বিধায়ককে গতকাল জরুরি ভিত্তিতে দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, আজ উত্তরাখণ্ডে বিজেপি বিধায়কদলের বৈঠকে পর্যবেক্ষক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর। বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো অবস্থাতেই বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী তীর্থ সিং রাওয়াতের পক্ষে আগামী ১০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিধানসভায় নির্বাচিত হয়ে আসা সম্ভব নয়। তাই বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বর্তমান বিধায়কদের মধ্যে থেকেই পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী বেছে নেবেন। আগামী ২৩ মার্চ ২০২২ উত্তরাখণ্ড বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in