UP: যে কেউ গুন্ডা নিয়ে এসে হিংসা ছড়াচ্ছে, এটাই গণতন্ত্র? পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন প্রিয়ঙ্কার
প্রিয়ঙ্কা গান্ধীফাইল ছবি

UP: যে কেউ গুন্ডা নিয়ে এসে হিংসা ছড়াচ্ছে, এটাই গণতন্ত্র? পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন প্রিয়ঙ্কার

উত্তরপ্রদেশে পঞ্চায়েত চেয়ারপার্সন নির্বাচনে নমিনেশন জমা দেওয়ার পথে যে সমাজবাদী পার্টির মহিলা কর্মীর শাড়ি খুলে নিয়েছিলেন বিরোধী দলের কর্মীরা, তাঁর সাথে আজ দেখা করলেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী।

উত্তরপ্রদেশে পঞ্চায়েত চেয়ারপার্সন নির্বাচনে নমিনেশন জমা দেওয়ার পথে যে সমাজবাদী পার্টির মহিলা কর্মীর শাড়ি খুলে নিয়েছিলেন বিরোধী দলের কর্মীরা, তাঁর সাথে আজ দেখা করলেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। সংবাদমাধ্যমের কাছে কংগ্রেস নেত্রী জানিয়েছেন, সংবিধান অনুযায়ী প্রত‍্যেক মহিলারই নির্বাচনে লড়াই করার অধিকার রয়েছে। কিন্তু ওই মহিলার কাছ থেকে সেই অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

গত সপ্তাহে এই নির্বাচন হয়েছে, যেখানে বিরোধীদের জোরদার ধাক্কা দিয়ে "ঐতিহাসিক জয়" লাভ করেছে বিজেপি। এই নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে যাওয়ার পথে সমাজবাদী পার্টির এক মহিলা কর্মীকে হেনস্থা করে তাঁর মনোনয়ন পত্র কেড়ে নেয় বিরোধীরা। তাঁর শাড়ি ধরেও টানা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই তীব্র সমালোচনা শুরু হয়।

লখিমপুর খেরি জেলায় এই ঘটনা ঘটেছিল। আজ ওই মহিলার সাথে সাক্ষাতের পর ওই এলাকায় ফের নির্বাচনের দাবি তুলেছেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। তিনি বলেন, "নির্বাচনে লড়াই করা ওনার সাংবিধানিক অধিকার ছিল। তাঁর কাছ থেকে সেই অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। তিনি মনোনয়ন জমা দিতে গিয়েছিলেন। তখন তাঁর ওপর হামলা করা হয়। তাঁর শাড়ি টেনে খুলে নেওয়া হয়। তাঁর ছেলেও ছিল তাঁর সাথে। হামলাকারীদের কেউ বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেনি। যে পুলিশ অফিসার বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন তাঁকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। প্রশাসন নীরব।"

তাঁর প্রশ্ন, "এইধরনের সহিংসতার ক্ষেত্রে নির্বাচন সাধারণত বাতিল করা হয়। কিন্তু এখানে তারপরেও নির্বাচন হয়েছে। তাঁর (সমাজবাদী পার্টির মহিলা কর্মী) কি নির্বাচনে লড়াই করার অধিকার নেই? যে কেউ ১০ জন গুন্ডা নিয়ে আসছে এবং হিংসা ছড়াচ্ছে। এটাই কি আমাদের গণতন্ত্র? আমরা এইরকম রাজ‍্য চেয়েছিলাম? এতো হিংসা হওয়া সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী রাজ‍্য সরকারের প্রশংসা করছেন।"

পরে নিজের ট‍্যুইটারে কংগ্রেস নেত্রী জানিয়েছেন পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় রাজ‍্যের মহিলাদের ওপর বিজেপি যে অত‍্যাচার করেছে সে বিষয়ে রাজ‍্য নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দেবেন তিনি। একটি ট‍্যুইটে তিনি লেখেন, "গণতন্ত্রকে অস্বীকার করা বিজেপির গুন্ডারা কান খুলে শুনে রাখুন - একজন মহিলা ব্লক প্রধান, বিধায়ক, এমপি, মুখ্যমন্ত্রী এমনকি প্রধানমন্ত্রীও হতে পারেন। আর যাঁরা তাঁদের ওপর নিপীড়নকারীদের সমর্থন করে সেই সরকারকে তাঁরা পরাস্তও করতে পারেন।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in