গাজিয়াবাদ হেনস্থার ঘটনায় ট্যুইটার, সাংবাদিক এবং কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে FIR দায়ের UP পুলিশের

গাজিয়াবাদে এক বয়স্ক মুসলিম ব‍্যক্তিকে হেনস্থার ঘটনায় ট‍্যুইটার, বেশ কয়েকজন সাংবাদিক ও কংগ্রেস নেতাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করলো উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।
গাজিয়াবাদ হেনস্থার ঘটনায় ট্যুইটার, সাংবাদিক এবং কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে  FIR দায়ের UP পুলিশের
ছবি সৌজন্য দ্য স্ক্রল

গাজিয়াবাদে এক বয়স্ক মুসলিম ব‍্যক্তিকে হেনস্থার ঘটনায় ট‍্যুইটার, বেশ কয়েকজন সাংবাদিক ও কংগ্রেস নেতাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করলো উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। লাঞ্ছিত ওই বয়স্ক ব‍্যক্তির ভিডিও পোস্ট করায় তাঁদের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করার অভিযোগ আরোপ করা হয়েছে।

৭২ বছরের ওই বয়স্ক ব‍্যক্তি সম্প্রতি একটি ভিডিও বার্তার মাধ্যমে অভিযোগ করেন গত ৫ জুন কয়েকজন ব‍্যক্তি তাঁকে জোর করে একটি জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে কুঁড়েঘরের মধ্যে আটকে রাখে। তাঁর দাড়ি কেটে দিয়ে "জয় শ্রী রাম" বলতে বাধ্য করা হয়েছে তাঁকে।

এই ভিডিও পোস্ট করায় রানা আয়ুব, সাবা নকভি এবং মহম্মদ জুবেইর নামে তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে গাজিয়াবাদের লোনি থানায় FIR দায়ের করেছে পুলিশ। অনলাইন নিউজ প্ল‍্যাটফর্ম "The Wire"-এর নামও রয়েছে এফআইআরে। এছাড়াও কংগ্রেস নেতা সালমান নিজামী, সামা মহম্মদ, মাসকুর উসমানি এবং সোশ্যাল মিডিয়া প্ল‍্যাটফর্ম ট‍্যুইটার এবং ট‍্যুইটার কমিউনিকেশন ইন্ডিয়া প্রাইভেট-এর নামও রয়েছে এফআইআরে।

ভারতীয় দন্ডবিধির ১৫৩ (দাঙ্গার জন্য উস্কানি দেওয়া), ১৫৩ এ (বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা ছড়ানো), ২৯৫এ (ধর্মীয় অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে ঘৃণা ছড়ানো), ১২০বি (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র) সহ একাধিক ধারায় পুলিশ এঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। গাজিয়াবাদ পুলিশের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ৩ যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকীদেরও চিহ্নিত করা হয়েছে এবং তাদেরও গ্রেপ্তার করা হবে।

এফআইআরে বলা হয়েছে, সত‍্য যাচাই না করেই অভিযুক্তরা ওই মুসলিম ব‍্যক্তির ভিডিও ট‍্যুইট করেছেন এবং ঘটনাটিকে সাম্প্রদায়িক রং দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। এদিন সকালেই সাংবাদিক মহম্মদ জুবের এক ট্যুইট বার্তায় জানান তিনি তাঁর আগের করা ভিডিও ট্যুইট ডিলিট করেছেন। যে ট্যুইটের উত্তরে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের মিডিয়া উপদেষ্টা শলভ মনি ত্রিপাঠী এক ট্যুইট বার্তায় জানিয়েছেন - উত্তরপ্রদেশ পুলিশ এখন তোমায় খুঁজছে, আগে তোমার ঠিকানা বলো। গুজব ছড়াবে আর তারপর চুপচাপ সেই ট্যুইট ডিলিট করে দেবে এই খেলা আর চলবে না।

এফআইআরে আরও বলা হয়েছে, সোমবার রাতেই গাজিয়াবাদ পুলিশ নিজেদের ট‍্যুইটার হ‍্যান্ডেলে এই আক্রমণের ঘটনার বিস্তারিত ব‍্যাখ‍্যা দিয়েছে। তা সত্ত্বেও অভিযুক্তরা ট‍্যুইটগুলো ডিলিট করেননি। ট‍্যুইটার কর্তৃপক্ষও এই ভিডিও সরানোর কোনো উদ্যোগ নেয়নি। এতেই স্পষ্ট একটি নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য নিয়েই এই ট‍্যুইট শেয়ার করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in