কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিকৃষ্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে দিল্লি পুলিশকে ব্যবহার করছেন - ইয়েচুরি
সীতারাম ইয়েচুরি ফাইল ছবি সংগৃহীত

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিকৃষ্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে দিল্লি পুলিশকে ব্যবহার করছেন - ইয়েচুরি

ইয়েচুরি ট্যুইটে লেখেন - কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিকৃষ্ট ও পক্ষপাতদুষ্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এক সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম-এর বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশকে ব্যবহার করছেন। অমানবিক। লজ্জাজনক।

'এই সময় অগ্রাধিকার দেওয়া উচিৎ স্বাস্থ্য পরিষেবা, ওষুধ, ভ্যাকসিনের ব্যবস্থায়। তার বদলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিকৃষ্ট ও পক্ষপাতদুষ্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এক সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম-এর বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশকে ব্যবহার করছেন। অমানবিক। লজ্জাজনক।' সোমবার দিল্লিতে ট্যুইটারের দুই অফিসে দিল্লি পুলিশের হানাদারি সম্পর্কে এক ট্যুইট বার্তায় একথা জানিয়েছেন সিপিআই(এম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি।

দিল্লি এবং গুরুগ্রামে ট্যুইটারের দুই অফিসে হানা দিলো দিল্লি পুলিশ। সোমবার বিকেলে দিল্লি এবং দিল্লি সংলগ্ন অঞ্চলে অবস্থিত ট্যুইটারের এই দুই অফিসে যায় দিল্লি পুলিশ।

গত ১৮ মে কংগ্রেসের লেটারহেড ব্যবহার করে সম্বিৎ পাত্রের করা এক ট্যুইট ঘিরে ‘টুলকিট’ বিতর্ক মাথা চাড়া দেয়। যে ট্যুইটকে ‘ভুয়ো’ বলে দাবি করে কংগ্রেস। চিঠিও দেওয়া হয় ট্যুইটারকে। কংগ্রেসের অভিযোগের জেরে সম্বিৎ পাত্রের এই ট্যুইটকে ‘ম্যানিপুলেটেড মিডিয়া’ আখ্যা দেয় ট্যুইটার। এরপরেই কেন্দ্রের তরফে এই বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে ট্যুইটারকে চিঠি দেওয়া হয়। যদিও কেন্দ্রের এই আপত্তির পরেও সম্বিৎ পাত্রের ট্যুইট থেকে ‘ম্যানিপুলেটেড মিডিয়া তকমা তোলেনি ট্যুইটার।

জানা যাচ্ছে ওই নোটিশের প্রেক্ষিতেই ট্যুইটারের অফিসে এদিন গেছিলো দিল্লি পুলিশ। সূত্র অনুসারে, কেন্দ্রের বক্তব্য চিঠির উত্তরে ট্যুইটার যা জানিয়েছে তা ‘অস্পষ্ট’। এদিন দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল-এর পক্ষ থেকে এই ঘটনার ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে। কিসের ভিত্তিতে ট্যুইটার সম্বিৎ পাত্রের ট্যুইটকে ‘ম্যানিপুলেটেড মিডিয়া’ আখ্যা দিয়েছে তা জানা প্রয়োজন বলেও জানিয়েছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই ওই টুলকিট বিতর্কে তদন্ত করতে শুরু করেছে পুলিশ।

গত ২০ মে এক ট্যুইট বার্তায় কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জানানো হয় – ট্যুইটার হেড কোয়ার্টারে আমাদের পক্ষ থেকে চিঠি লিখে জে পি নাড্ডা, সম্বিৎ পাত্র, বি এল সন্তোষ এবং স্মৃতি ইরানীর ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বরাবরের জন্য সাসপেন্ড করার দাবি জানানো হয়েছে – যারা নিজেদের ব্যর্থতা থেকে দৃষ্টি ঘোরাতে পরিকল্পিত ভাবে ভুয়ো তথ্য ছড়িয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in