সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং #ResignModi হ্যাশট্যাগ ব্লক করেও পিছু হটল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ

ব্লক তুলে নিয়ে ফেসবুক সাফাই দিল, কেন্দ্রের নির্দেশে তারা এমনটা করেনি। পুরো ব্যাপারটাই ‘ভ্রান্তিবশত’ হয়েছে।
সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং #ResignModi হ্যাশট্যাগ ব্লক করেও পিছু হটল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ

হ্যাশট্যাগ ‘রিজাইনমোদি’। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পদত্যাগের দাবি করা এই হ্যাশট্যাগ সোশ্যাল মিডিয়ায় কার্যত ট্রেন্ডিং হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এরপরই ওই হ্যাশট্যাগকে ব্লক করে দেয় ফেসবুক। বুধবার ফেসবুকের ওই পদক্ষেপের পরে শুরু হয় প্রতিবাদের ঝড়। অবশেষে সেই ব্লক তুলে নিয়ে ফেসবুক সাফাই দিল, কেন্দ্রের নির্দেশে তারা এমনটা করেনি। পুরো ব্যাপারটাই ‘ভ্রান্তিবশত’ হয়েছে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় ভারতে হু হু করে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। মহারাষ্ট্র, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশের মতো বহু রাজ্যে মারা যাচ্ছেন অসংখ্য মানুষ। শ্মশানে চিতা জ্বালানোর জায়গা না পেয়ে শ্মশানের বাইরে অস্থায়ী শ্মশানে পুড়ছে করোনা রোগীর চিতা। হাসপাতালের বেড থেকে অক্সিজেন সরবরাহ সবেতেই ঘাটতির অভিযোগ উঠেছে। এই পরিস্থিতিতেও প্রধানমন্ত্রী ভোটের জন্য জনসভা করছেন‌ কী করে, এমন অভিযোগ জানাতে থাকে বিরোধীরাও। হ্যাশট্যাগ ‘রিজাইনমোদি’ ব্যবহার করে টুইটার, ফেসবুকে প্রতিবাদ জানাতে থাকেন রাজনৈতিক নেতারা। তাতে যোগ দেন সাধারণ নেটিজেনরাও। দ্রুত ওই হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডিং হয়ে যায়।

গতকাল, বুধবার আচমকাই দেখা যায় ওই হ্যাশট্যাগকে ব্লক করে দিয়েছে মার্ক জুকেরবার্গের সংস্থা। এই পদক্ষেপে স্বাভাবিকভাবেই অনেকেই প্রতিবাদ করতে শুরু করেন এহেন পদক্ষেপের। শেষ পর্যন্ত ব্লক তুলে নিতে বাধ্য হল ফেসবুক। কিন্তু কেন ব্লক করা হয়েছিল ওই হ্যাশট্যাগ? ফেসবুকের এক মুখপাত্রের কথায়, 'আমরা ভুলবশত সাময়িকভাবে ব্লক করেছিলাম হ্যাশট্যাগটি। এবং সেটা ভারত সরকারের কোনও নির্দেশের কারণে নয়। অবশেষে সেই ব্লক তুলেও নেওয়া হয়েছে।'

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in