TN: বন্ধ হচ্ছে ফোর্ড ইন্ডিয়ার চেন্নাই প্ল্যান্ট - ক্ষতিপূরণ প্যাকেজ ঘিরে আশা-আশঙ্কায় শ্রমিকরা

তাঁর মতে, প্রায় ১০০০ শ্রমিক এখানে কাছাকাছি মারাইমালাইনগরে প্ল্যান্টের ভিতরে এবং প্রায় ৭০০ শ্রমিক গেটের বাইরে অবস্থান করছেন। সোমবার থেকে শ্রমিকরা ফোর্ড ইন্ডিয়ার প্ল্যান্টে অবস্থান বিক্ষোভ চালাচ্ছেন।
TN: বন্ধ হচ্ছে ফোর্ড ইন্ডিয়ার চেন্নাই প্ল্যান্ট - ক্ষতিপূরণ প্যাকেজ ঘিরে আশা-আশঙ্কায় শ্রমিকরা
চেন্নাইতে ফোর্ড ইন্ডিয়া কারখানায় শ্রমিক বিক্ষোভছবি ট্যুইটার থেকে সংগৃহীত

খুব শীঘ্রই বন্ধ হয়ে যেতে চলেছে চেন্নাইয়ের ফোর্ড ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের প্ল্যান্ট। যে প্ল্যান্টে প্রায় ২,০০০ কর্মী কাজ করছেন। এই মুহূর্তে তাঁরা তাঁদের ক্ষতিপূরণ প্যাকেজের বিষয়ে ম্যানেজমেন্টের কাছ থেকে কিছু ভাল খবর আশা করেছেন। একথা জানিয়েছেন এক ইউনিয়ন আধিকারিক।

এক ইউনিয়ন আধিকারিক আইএএনএস-কে জানিয়েছেন, "ম্যানেজমেন্ট জানিয়েছে, বুধবার বিকেলে কোম্পানীর পক্ষ থেকে কম্পেনসেশন প্যাকেজ ঘোষণা করা হবে। আমরা এর জন্য অপেক্ষা করছি। যদি কর্মীদের পক্ষে প্রস্তাবটি গ্রহণযোগ্য হয়, তবে ঠিক আছে এবং যদি না হয়, আমরা আমাদের প্রতিবাদ আন্দোলন চালিয়ে যাব।"

তাঁর মতে, প্রায় ১০০০ শ্রমিক এখানে কাছাকাছি মারাইমালাইনগরে প্ল্যান্টের ভিতরে এবং প্রায় ৭০০ শ্রমিক গেটের বাইরে অবস্থান করছেন। সোমবার থেকে শ্রমিকরা ফোর্ড ইন্ডিয়ার প্ল্যান্টে অবস্থান বিক্ষোভ চালাচ্ছেন। মঙ্গলবার, রাজ্যের শ্রম বিভাগের একজন আধিকারিক কারখানায় এসে তাদের সাথে আলোচনা করেন।

মঙ্গলবার সংস্থার এক প্রবীণ কর্মী আইএএনএস-কে জানিয়েছেন, "বেশিরভাগ কর্মীদের জন্য এটিই হবে চূড়ান্ত চাকরি। বয়স আমাদের বিরুদ্ধে হওয়ায় আমরা চুক্তি শ্রমে যেতে পারি। অফিসের কর্মীরা অন্য কোথাও বা এমনকি ফোর্ডের অন্যান্য ব্যবসায়িক উদ্যোগেও এখানে চাকরি পেতে পারে।" তাঁর মতে, অন্যান্য বড় সংস্থা চায় না ফোর্ড ইন্ডিয়া তাঁদের কর্মীদের ভালো ক্ষতিপূরণ প্যাকেজ দিক। কারণ সেক্ষেত্রে ভবিষ্যতে অন্য সংস্থাকেও সেই প্যাকেজ মেনে নিতে হবে।

ওই কর্মী আরও জানিয়েছেন, "ফোর্ড ইন্ডিয়ার মূল সংস্থা ফোর্ড মোটর কোম্পানির জন্য, ডলার-টাকার বিনিময় মূল্যের কারণে শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণের পরিমাণ কম হবে।"

তিনি আরও বলেন, সোমবার থেকে কারখানার ভেতরে থাকা শ্রমিকদের জন্য ক্যান্টিন থেকে খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে এবং যারা বাইরে তাদের দেখাশোনা করছে শ্রমিক ইউনিয়ন। শ্রমিক ইউনিয়নের এক আধিকারিক আইএএনএসকে জানিয়েছেন, মারাইমালাইনগর প্ল্যান্টে গাড়ির উত্পাদন মাত্র দশ দিনের জন্য নির্ধারিত করা হয়েছে। বর্তমানে, এই প্ল্যান্ট থেকে রপ্তানি বাজারের জন্য ইকোস্পোর্ট চালু করা হয়েছে।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে, ফোর্ড ইন্ডিয়া চতুর্থ ত্রৈমাসিকের মধ্যে গুজরাটের সানন্দের কারখানা এবং ২০২২ সালের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের মধ্যে চেন্নাইতে গাড়ি এবং ইঞ্জিন উত্পাদন বন্ধ করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিল। উল্লেখ্য, দেশে ফোর্ড ইন্ডিয়ার চারটি প্ল্যান্ট রয়েছে। যার মধ্যে গাড়ি এবং ইঞ্জিন-এর কারখানা আছে চেন্নাই এবং সানন্দে।

মারাইমালাইনগর প্ল্যান্টের কর্মীরাও বাদ পড়ায় হতাশ, কারণ ফোর্ড ইন্ডিয়ার গুজরাট প্ল্যান্ট-এর কর্মীদের টাটা মোটরসের সহযোগী সংস্থা টাটা প্যাসেঞ্জার ইলেকট্রিক মোবিলিটিতে নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে৷

চেন্নাই প্ল্যান্টে প্রায় ২৭০০ স্থায়ী শ্রমিক এবং প্রায় ৬০০ জন কর্মী রয়েছে। তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং এআইএডিএমকে সমন্বয়কারী ও পনিরসেলভম বলেছিলেন যে রাজ্যে ফোর্ড ইন্ডিয়ার উত্পাদন বন্ধ করা একটি বড় উদ্বেগের বিষয়।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in