নিজেদের ইচ্ছায় মরছেন, বাড়িতে থাকলেও মারা যেতে পারতেন: আন্দোলনরত কৃষকের মৃত্যুতে হরিয়ানার মন্ত্রী

"৬ মাসে এক থেকে দুই লাখ লোকের মধ্যে ২০০ জন কি মারা যায়না?" প্রশ্ন হরিয়ানার কৃষিমন্ত্রীর
নিজেদের ইচ্ছায় মরছেন, বাড়িতে থাকলেও মারা যেতে পারতেন: আন্দোলনরত কৃষকের মৃত্যুতে হরিয়ানার মন্ত্রী
হরিয়ানার কৃষিমন্ত্রী জেপি দালালছবি ট্যুইটার থেকে সংগৃহীত

গত প্রায় তিনমাস ধরে দিল্লি সীমান্তে বিতর্কিত কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আন্দোলন চালাচ্ছেন লক্ষাধিক কৃষক। আন্দোলন চলাকালীন দুশোর বেশি কৃষকের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি আন্দোলনরত সংগঠনগুলোর। কৃষকদের দাবি মানা না দূর তাঁদের মৃত্যু নিয়ে চূড়ান্ত বিতর্কিত মন্তব্য করলেন বিজেপি শাসিত হরিয়ানার কৃষিমন্ত্রী জেপি দালাল।

হরিয়ানার ভিওয়ানিতে শনিবার দুশো জন কৃষকের মৃত্যু নিয়ে কৃষিমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয়। এই প্রশ্নের জবাবে প্রথমে হাসেন তিনি। এরপর হাসি হাসি মুখ করেই বলেন, "বাড়িতে থাকলে কী তাঁরা মারা যেতেন না? তাঁরা যদি বাড়িতে থাকতেন, তাহলেও মারা যেতেন। ৬ মাসে এক থেকে দুই লাখ লোকের মধ্যে ২০০ জন কি মারা যায়না?"

এরপর ফের হেসে তিনি বলেন, "কেউ হার্ট অ্যাটাকের কারণে মারা যাচ্ছেন তো কেউ অসুস্থ হয়ে মারা যাচ্ছেন।... এঁরা প্রত‍্যেকেই নিজের ইচ্ছায় মরছেন। তাঁদের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা রয়েছে।"

কৃষকদের মৃত্যু নিয়ে কৃষিমন্ত্রীর এই মন্তব্যে হতবাক বিরোধী নেতা থেকে আমজনতা‌। সমালোচনার ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়াতে। কংগ্রেস নেতা রনদীপ সিং সুরযেওয়ালা নিজের ট‍্যুইটারে লেখেন, "অসংবেদনশীল মানুষরাই অন্নদাতাদের আন্দোলন প্রসঙ্গে এইধরনের শব্দ প্রয়োগ করতে পারেন।" হরিয়ানা কংগ্রেসের প্রধান কুমারী শেলজার ট‍্যুইট, "আমাদের কৃষক ভাইদের ত‍্যাগের বিষয়ে হরিয়ানার কৃষিমন্ত্রীর এই প্রতিক্রিয়া এবং হাসি অত‍্যন্ত দুঃখজনক।"

যদিও কৃষিমন্ত্রী জেপি দালালের কথায়, তাঁর মন্তব্যকে বিকৃত করা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, "আমার কথায় যদি কেউ আঘাত পেয়ে থাকেন তার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী।" কৃষকদের কল‍্যাণের জন্য কাজ করে যাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in