মিথ্যে অভিযোগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের প্রশ্নই ওঠে না - মহারাষ্ট্র কান্ডে কড়া বার্তা পাওয়ারের
শরদ পাওয়ার ও উদ্ধব ঠাকরেফাইল ছবি শরদ পাওয়ার-এর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

মিথ্যে অভিযোগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের প্রশ্নই ওঠে না - মহারাষ্ট্র কান্ডে কড়া বার্তা পাওয়ারের

গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা এনসিপি নেতা অনিল দেশমুখের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলেছিলেন পাওয়ার। মুম্বাইয়ের প্রাক্তন পুলিশ প্রধান জুলিও রিবেইরোর নাম প্রস্তাব করেছিলেন তিনি

আম্বানির বাড়ির কাছে বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি উদ্ধারের ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া পুলিশ অফিসার শচীন ওয়াজের সাথে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের সাক্ষাতের যে সময়কাল উল্লেখ করা হচ্ছে, সেই সময় অনিল দেশমুখ হাসপাতাল চিকিৎসাধীন ছিলেন। এই মিথ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের কোনো প্রশ্নই ওঠে না। গতকালের পর আজও মিডিয়ার সামনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হয়েই সওয়াল করলেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার।

মিডিয়ার সামনে আজ‌ শরদ পাওয়ার জানিয়েছেন, "ফেব্রুয়ারি মাসের ৫ থেকে ১৫ তারিখ পর্যন্ত হাসপাতালে ছিলেন অনিল দেশমুখ এবং ১৬ থেকে ২৭ তারিখ পর্যন্ত নাগপুরে আইসোলেশনে ছিলেন তিনি। এই সমস্ত তথ‍্যই মুখ‍্যমন্ত্রী ঠাকরের‌ কাছে পাঠানো হবে। অনিল দেশমুখের পদত্যাগের কোনো প্রশ্নই ওঠে না।"

গতকালই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা এনসিপি নেতা অনিল দেশমুখের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলেছিলেন পাওয়ার। এক্ষেত্রে মুম্বাইয়ের প্রাক্তন পুলিশ প্রধান জুলিও রিবেইরোর নাম প্রস্তাব করেছিলেন তিনি। যদিও জুলিও রিবেইরো তা প্রত্যাখান করেছেন।

মুখ্যমন্ত্রী ঠাকরে আজ বিকেল সাড়ে চারটা নাগাদ রাজ‍্যের আইন এবং বিচার মন্ত্রকের অফিসারদের নিয়ে একটি বৈঠক ডেকেছেন। রাজ‍্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দিকে তাঁর তীক্ষ্ণ নজর এর আগে মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশংসা এনে দিয়েছে। কিন্তু খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধেই এবার গুরুতর অভিযোগ ওঠায় সেই গর্ব কিছুটা ম্লান হয়ে গেছে।

প্রসঙ্গত, সদ্য অপসারিত মুম্বাইয়ের পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিং শনিবার উদ্ধব ঠাকরেকে একটি চিঠি লিখে অভিযোগ করেন, অনিল আম্বানির নিরাপত্তা তদন্তে হস্তক্ষেপ করছেন অনিল দেশমুখ এবং গ্রেফতার হওয়া পুলিশ অফিসার শচীন ওয়াজের সাথে কিছুদিন আগেই দেখা করে প্রতি মাসে ১০০ কোটি টাকা তোলাবাজি আদায়ের নির্দেশ দিয়েছিলেন তাঁকে। এছাড়াও বিশেষ‌ বিশেষ ক্ষেত্রে তাঁকে ও সিনিয়র পুলিশ অফিসারদের এড়িয়ে কীভাবে মামলা পরিচালনা করতে হবে এবং অভিযোগ দায়ের করতে হবে, সেই নির্দেশও দিতেন অনিল দেশমুখ। যদিও এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে পরম বীর সিংহের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

মুকেশ আম্বানির নিরাপত্তা তদন্তে অব‍্যবস্থার অভিযোগে বুধবার পরম বীর সিংকে হোম গার্ডে বদলি করা হয়। এরপরই শনিবার মুখ্যমন্ত্রীকে এই চিঠি লেখেন তিনি। কেন বদলির পর এই অভিযোগ তুলছেন তিনি, গতকাল তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলেন শরদ পাওয়ার।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in