Delhi: শাড়ি পরে ঢুকতে বাধা, রেস্তোরাঁ বন্ধের নির্দেশ পুরসভার

রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের দাবি, শাড়ি কোনও 'স্মার্ট' পোশাক নয়। তাই শাড়ি পরিহিত কোনও মহিলার প্রবেশও নিষিদ্ধ ওই রেস্তোরাঁয়।
Delhi: শাড়ি পরে ঢুকতে বাধা, রেস্তোরাঁ বন্ধের নির্দেশ পুরসভার
ছবি - সংগৃহীত

এক রেস্তোরাঁয় শাড়ি পরে গিয়েছিলেন এক মহিলা। সেটাই ছিল তাঁর অপরাধ। তাই তাঁকে রেস্তোরাঁয় ঢুকতেই দেওয়া হল না। পত্রপাঠ বিদায় করা হল। রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের দাবি, শাড়ি কোনও 'স্মার্ট' পোশাক নয়। তাই শাড়ি পরিহিত কোনও মহিলার প্রবেশও নিষিদ্ধ ওই রেস্তোরাঁয়। ঘটনাস্থল রাজধানী নয়াদিল্লির একটি অভিজাত রেস্তোরাঁ। বন্ধের নোটিশ জারি করল পুরসভা।

কিছুদিন আগেই অভিযোগকারী মহিলা পেশায় ব্লগার অনীতা চৌধুরী ওই রেস্তোরাঁর অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। তিনি সেদিনের ঘটনা ভিডিও করেন। তাতে স্পষ্ট ওই অভিজাত রেস্তোরাঁয় ঢুকতে যাওয়ার মুহূর্তে অনীতা চৌধুরীকে বাধা দিয়ে এক কর্মী জানান, তাঁকে রেস্তোরাঁয় ঢুকতে দেওয়া যাবে না। কারণ শাড়ি স্মার্ট পোশাক নয়।

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে যায়। তার প্রেক্ষিতে পদক্ষেপ করে পুরসভা। বুধবারই ওই রেস্তোরাঁ বন্ধের নোটিশ পাঠানো হয়েছে দক্ষিণ দিল্লি পুরসভার পক্ষ থেকে। পুরসভার মেয়র জানান, আনসাল প্লাজার অ্যাকুলা রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের কাছে বন্ধের নোটিশ দেওয়া হয়েছে। ওই রেস্তোরাঁ কোনও বৈধ লাইসেন্স ছিল না।

গত ২৪ তারিখ পুরসভা এই নোটিশ জারি করে অবিলম্বে রেস্তোরাঁ বন্ধের কথা জানায়। গত ২১ তারিখ ওই রেস্তোরাঁতে আচমকাই হানা দেন পুরসভার খাদ্য পর্যবেক্ষক আধিকারিক। দেখেন, খাদ্য সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ ট্রেড লাইসেন্স নেই রেস্তোরাঁতে। কোভিড বিধিও মানা হয়নি ওই রেস্তোরাঁয়। উপরন্তু জমি দখল করে রেস্তোরাঁটি চলছিল। শেষ সুযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু গত ২৪ তারিখ ফের পুরসভা অভিযান চালালে একই ত্রুটি নজরে আসে। এই মর্মে নোটিশ দেওয়া হয়।

রেস্তোরাঁর মালিক জানিয়েছেন, ‘পুরসভার নির্দেশেই আমি বন্ধ করে দিয়েছে। যা নথি বা কাগজ দরকার তা আদায় করে ফের খুলব এই রেস্তোরাঁ।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.