কর্নাটকে বিজেপির “অপারেশন কমলা” কংগ্রেস-জেডিএস সরকার পতনের কারণ! তদন্তের অনুমতি হাইকোর্টের
ফাইল ছবি- সংগৃহীত

কর্নাটকে বিজেপির “অপারেশন কমলা” কংগ্রেস-জেডিএস সরকার পতনের কারণ! তদন্তের অনুমতি হাইকোর্টের

২০১৯ সালে কর্নাটকে কংগ্রেস-জনতা দল সেক্যুলার (জেডিএস) সরকারের পতনের পিছনে বিজেপি 'অপারেশন কমলা'-কে কাজে লাগিয়েছিল। কর্নাটক হাইকোর্ট এবার সেই ঘটনার তদন্তের অনুমতি দিয়েছে।

২০১৯ সালে কর্নাটকে কংগ্রেস-জনতা দল সেক্যুলার (জেডিএস) সরকারের পতনের পিছনে বিজেপি 'অপারেশন কমলা'-কে কাজে লাগিয়েছিল। কর্নাটক হাইকোর্ট এবার সেই ঘটনার তদন্তের অনুমতি দিয়েছে। এর ফলে কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে সেখানকার ইয়েদুরাপ্পা সরকার।

উল্লেখ্য, দীর্ধদিনের জোট সরকার চলার পর জোটের বহু বিধায়ক দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন। কংগ্রেসের অভিযোগ, বিজেপি দুর্নীতি করে এমনটা ঘটিয়েছিল। যার পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছিল অপারেশন কমলা বা লোটাস। যা বিজেপির প্রতীক। এই অবস্থায় ইয়েদুরাপ্পার একটি অডিও টেপ প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে ইয়েদুরাপ্পাকে এক বিধায়কের ছেলের সঙ্গে কথা বলতে শোনা গিয়েছে। জোটের বিধায়ককে প্রলোভন দেখিয়ে দলত্যাগ করানোর প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে এই অডিও টেপ থেকে। পরে ওই বিধায়ক ইয়েদুরাপ্পার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু বিষয়টি তারপর থেকে স্থগিতই ছিল।

এবার ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা টুইট করে নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেছেন, বেআইনি ও অসাংবিধানিক উপায়ে গঠিত হওয়া ইয়েদুরাপ্পা সরকারের এবার চলে যাওয়ার সময় এসেছে। প্রধানমন্ত্রী এবার এই বিধায়কদের শাস্তির ব্যবস্থা করবেন? প্রধানমন্ত্রী কী মুখ্যমন্ত্রীকে অপসারিত করবেন? 'না খাউঙ্গা, না খানে দুঙ্গা' স্লোগানকে কী সার্থক করবেন? বলে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

মনে করা হচ্ছে, হাইকোর্টের নির্দেশে এবার বেশ চাপেই পড়েছে কর্নাটকের ইয়েদুরাপ্পা সরকার।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in