তেলেঙ্গানা: কোভিড বিধি উড়িয়ে নির্বাচনী প্রচারে BJP, TRS

এই ভয়াবহ অবস্থা যে নির্বাচনের উৎসাহে কোনো ভাটাই ফেলতে পারেনি, তা প্রমাণ করে দিল বিজেপির প্রচারের ছবি,‌ যা বিজেপি নিজেই ট‍্যুইটারে পোস্ট করেছে। তেলেঙ্গানার পুরসভা নির্বাচন উপলক্ষ্যে ছিল এই সমাবেশ।
তেলেঙ্গানা: কোভিড বিধি উড়িয়ে নির্বাচনী প্রচারে BJP, TRS
তেলেঙ্গানার ওয়ারঙ্গলে বিজেপির নির্বাচনী প্রচারছবি সৌজন্য শিব আরুরের ট্যুইটার হ্যান্ডেল

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কার্যত বিধ্বস্ত গোটা দেশ। দৈনিক সংক্রমণ সাড়ে তিন লাখের গন্ডি ছাড়িয়েছে। দৈনিক মৃত্যুর সংখ‍্যাও সাড়ে তিন হাজার ছুঁই ছুঁই। যদিও এই ভয়াবহ অবস্থা যে নির্বাচনের উৎসাহে কোনো ভাটাই ফেলতে পারেনি, তা প্রমাণ করে দিল বিজেপির প্রচারের ছবি,‌ যা বিজেপি নিজেই ট‍্যুইটারে পোস্ট করেছে। তেলেঙ্গানার পুরসভা নির্বাচন উপলক্ষ্যে ছিল এই সমাবেশ।

আগামী ৩০ এপ্রিল তেলেঙ্গানার সাতটি পুরসভার নির্বাচন রয়েছে। প্রচারের শেষ দিনে একাধিক এলাকায় দাপিয়ে প্রচার করেছে বিজেপি। বাদ যায়নি টিআরএস-ও। ওয়ারাঙ্গল পৌর কর্পোরেশনে দলের হয়ে বিশাল জনসমাবেশ করেছেন রাজ‍্য সভাপতি বন্দী সঞ্জয় এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি। খাম্মাম পুরসভাতেও একটি প্রচুর লোক নিয়ে একটি সভা করেছেন কিষাণ রেড্ডি।

ট‍্যুইটারে এই সমাবেশের ছবি পোস্ট করতেই নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়ে বিজেপি। প্রবল সমালোচনার জেরে কিছুক্ষণ পরে ছবিগুলো মুছে দেওয়া হয়।

তবে শুধু বিজেপিই নয়, কোভিডের বাড়বাড়ন্ত সত্ত্বেও প্রচারে কোনো খামতি রাখেনি ক্ষমতাসীন তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (টিআরএস)। কোভিড প্রোটোকল ভেঙে প্রচার চালিয়ে গেছে অন‍্য রাজনৈতিক দলগুলোও।

তেলেঙ্গানার টিআরএস-এর নির্বাচনী প্রচার
তেলেঙ্গানার টিআরএস-এর নির্বাচনী প্রচারছবি সৌজন্য শিব আরুরের ট্যুইটার হ্যান্ডেল

সম্প্রতি নাগার্জুনসাগর বিধানসভা উপনির্বাচনের জন্য একটি জনসমাবেশে যোগ দেওয়ার পরই করোনা আক্রান্ত হন রাজ‍্যের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। সংক্রমিত হয়েছেন তাঁর ছেলে তথা মিউনিসিপ্যাল অ‍্যাডমিনিস্ট্রেশন মন্ত্রী কেটি রামা রাও। জানা গেছে, ওই সমাবেশের পর ষাট জনেরও বেশি রাজনৈতিক নেতা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

আজ সকালে প্রকাশিত কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, তেলেঙ্গানায় শেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৬১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫৬ জনের। রাজ‍্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ১৯ হাজার ৯৬৬।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in