নাবালিকাকে ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৩ আসামী বেকসুর খালাস সুপ্রিম কোর্টে

ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১২ সালে। রবি কুমার, রাহুল এবং বিনোদ নামের তিন ব্যক্তি মিলে অপহরণ করে নির্যাতিতাকে। এরপর তাঁকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়।
সুপ্রিম কোর্ট
সুপ্রিম কোর্ট ফাইল ছবি সংগৃহীত

২০১২ সালে দিল্লির ছাওয়ালা এলাকায় ১৯ বছর বয়সী এক তরুণীকে ধর্ষণ করার পর নৃশংসভাবে খুন করে তিন যুবক। এই ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর তিনজনকেই মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করে দিল্লি হাইকোর্ট। সোমবার সেই তিনজন আসামীকেই বেকসুর খালাস করল সুপ্রিম কোর্ট।

ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১২ সালে। রবি কুমার, রাহুল এবং বিনোদ নামের তিন ব্যক্তি মিলে অপহরণ করে নির্যাতিতাকে। এরপর লাগাতার ধর্ষণ করার পর গাড়ির সরঞ্জাম থেকে শুরু করে মাটির পাত্রের মতো জিনিস দিয়ে একাধিকবার তাঁর উপর হামলা করা হয়। অবশেষে নির্যাতিতার দেহটি হরিয়ানার এক এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়।

দিল্লির ছাওয়ালা (নাজফগড়) থানায় এই বিষয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়। প্রসিকিউশনের মতে, এটি অত্যন্ত নৃশংস অপরাধ। কারণ দোষীরা প্রথমে মেয়েটিকে অপহরণ করে। এরপর তাঁকে ধর্ষণ করে হত্যা করে এবং তাঁর দেহ হরিয়ানার রেওয়ারি জেলার রোধাই গ্রামের একটি মাঠে ফেলে দেয়। নির্যাতিতার দেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

এই ঘটনার পর ২০১৪ সালের ২৬ আগস্ট দিল্লি হাইকোর্ট তিন জনকেই মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করে। তিন ব্যক্তিকে অপহরণ, ধর্ষণ এবং হত্যার বিভিন্ন অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। আদালতের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছিল, তিনজন 'শিকারী' 'শিকারের খোঁজে' রাস্তায় চলাফেরা করছিল।

সুপ্রিম কোর্ট
Karnataka: নাবালিকাদের মাদক খাইয়ে 'অপকর্ম' করতেন লিঙ্গায়েত ধর্মগুরু মুরুগা, দাবি পুলিশের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in