বেদান্ত গ্রুপের স্টারলাইট কারখানার অক্সিজেন প্ল্যান্ট খোলার অনুমতি শীর্ষ আদালতের

স্থানীয় মানুষ ও বিক্ষোভকারীরা স্পষ্টই জানান – কোনো অজুহাতেই স্টারলাইট কারখানা যেন খুলতে না দেওয়া হয়। বিক্ষোভকারীদের বক্তব্য, বেদান্ত কর্তৃপক্ষ পিছনের দরজা দিয়ে এই সুযোগে স্টারলাইট কারখানা খুলতে চাইছে
বেদান্ত গ্রুপের স্টারলাইট কারখানার অক্সিজেন প্ল্যান্ট খোলার অনুমতি শীর্ষ আদালতের
স্টারলাইট কপারফাইল ছবি সংগৃহীত

জাতীয় বিপর্যয়ের পরিস্থিতিতে বেদান্ত গ্রুপের স্টারলাইট কারখানার অক্সিজেন প্ল্যান্ট খোলার অনুমতি দিলো সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এই প্ল্যান্ট খোলার সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেন। গত ২০১৮ সাল থেকে স্থানীয় মানুষের বিক্ষোভের জেরে এবং পরিবেশগত কারণে বন্ধ হয়ে ছিলো তুতিকোরিনে অবস্থিত বেদান্ত গ্রুপের স্টারলাইট কারখানা।

এদিন বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় বলেন – এটি একটি জাতীয় বিপর্যয়। মানুষ মারা যাচ্ছে। এর আগে সোমবার স্টারলাইট খোলার বিষয়ে তামিলনাড়ু সরকার এক সর্বদলীয় বৈঠক ডাকেন। যেখানে ডিএমকে এম কে স্ট্যালিন জানান – স্টারলাইটের অক্সিজেন প্ল্যান্ট যদি তামিলনাড়ুকে বিনামূল্যে অক্সিজেন সরবরাহ করে তাহলেই স্টারলাইট খুলতে দেওয়া যেতে পারে।

গত ২২ এপ্রিল তামিলনাড়ুতে তাদের প্ল্যান্ট খুলতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানায়। বেদান্ত গ্রুপের পক্ষে আইনজীবী হরিশ সালভে শীর্ষ আদালতে বলেন যদি স্টারলাইট খোলার অনুমতি দেওয়া হয় বেদান্ত তাহলে আগামী ৫-৬ দিনের মধ্যে অক্সিজেন উৎপাদন শুরু করতে পারবে। যা মানুষের জীবন বাঁচাতে সাহায্য করবে। হরিশ সালভের এই আবেদনে সহমত পোষণ করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। তিনি বলেন দেশে এই মুহূর্তে অক্সিজেনের প্রয়োজন আছে।

এর আগে গত শুক্রবার স্টারলাইট বিরোধী বিক্ষোভকারীরা তামিলনাড়ু সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছিলো যে কোনো অবস্থাতেই যেন স্টারলাইট কারখানা খোলার অনুমতি না দেওয়া হয়। এই বিষয়ে গত শুক্রবার থুটথুখুন্ডির জেলা কালেক্টরের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের এক বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে স্থানীয় মানুষ এবং বিক্ষোভকারীরা স্পষ্টই জানান – কোনো অজুহাতেই স্টারলাইট কারখানা যেন খুলতে না দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে বিক্ষোভকারীদের বক্তব্য, বেদান্ত কর্তৃপক্ষ পিছনের দরজা দিয়ে এই সুযোগে স্টারলাইট কারখানা খুলতে চাইছে। তাঁরা রাজ্য সরকারকেও কোনো অবস্থাতেই স্টারলাইটের অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালাতে দেবেন না বলে জানান।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in