এলগার পরিষদ মামলায় জামিন পেলেন না সমাজকর্মী স্ট‍্যান স্বামী
স্ট্যান স্বামীফাইল ছবি সংগৃহীত

এলগার পরিষদ মামলায় জামিন পেলেন না সমাজকর্মী স্ট‍্যান স্বামী

মেডিক্যাল গ্রাউন্ডে জামিনের আবেদন করেছিলেন ৮৩ বছরের আদিবাসী অধিকারকর্মী স্ট‍্যান স্বামী। কিন্তু অতিরিক্ত দায়রা আদালতের বিচারক বিচারপতি ডিই কোথালিকর তাঁর সেই আবেদন খারিজ করে দেন।

আজও জামিন পেলেন না এলগার পরিষদ মামলায় ধৃত বিশিষ্ট সমাজকর্মী স্ট‍্যান স্বামী। মুম্বাইয়ে ন‍্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির একটি বিশেষ আদালত তাঁর জামিন নাকচ করে দিয়েছে।

মেডিক্যাল গ্রাউন্ডে জামিনের আবেদন করেছিলেন ৮৩ বছরের আদিবাসী অধিকারকর্মী স্ট‍্যান স্বামী। কিন্তু অতিরিক্ত দায়রা আদালতের বিচারক বিচারপতি ডিই কোথালিকর তাঁর সেই আবেদন খারিজ করে দেন। গত বছর অক্টোবর মাসে রাঁচিতে তাঁর নিজের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল স্ট‍্যান স্বামীকে এবং সেদিন থেকে নভি মুম্বাইয়ের তালোজা সেন্ট্রাল জেলে বন্দি রয়েছেন তিনি।

স্ট‍্যান স্বামীর আইনজীবীরা আদালতে জানিয়েছেন, পার্কিনসন রোগে ভুগছেন তিনি এবং দু'কানেই শোনার ক্ষমতা হারিয়েছেন তিনি। এছাড়াও আরো বেশ কয়েকটি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছেন তিনি।

স্ট‍্যান স্বামীর জামিনের আবেদনের বিরোধিতা করে আদালতে ন‍্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি বা এনআইএ জানিয়েছে, তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে স্ট‍্যান স্বামী "ভিস্তাপন বিরোধী জন বিকাশ আন্দোলন" এবং "পিপলস ইউনিয়ন ফর সিভিল লিবার্টিজ''-এর মতো সংগঠনগুলোর কট্টর সমর্থক ছিলেন। সিপিআই(মাওয়িস্ট)-এর প্রথম সারির সমর্থক ছিলেন তিনি।

এক্ষেত্রে স্ট‍্যান স্বামীর আইনজীবী শরীফ শাইখের যুক্তি ছিল, এলগার পরিষদ-মাওবাদী মামলায় স্ট‍্যান স্বামীর সংযুক্ত থাকার কোনো প্রমাণ আদালতে পেশ করতে ব‍্যর্থ হয়েছে এনআইএ। কিন্তু এরপরও তাঁর জামিন মঞ্জুর করেনি আদালত।

পারকিনসন রোগের কারণে গত বছর নভেম্বর মাস থেকে নিজের জামিনের আবেদন জানাচ্ছিলেন স্ট‍্যান স্বামী, কিন্তু প্রতিবারই তা খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। এটি একটি স্নায়ুঘটিত রোগ,‌ যার ফলে স্নায়ুর স্বাভাবিক ক্ষমতা হারিয়ে যায়। এই রোগে জল খাওয়ার মতো স্বাভাবিক কাজগুলোও অন‍্যের সহায়তা ছাড়া করতে পারে না রোগী। এই রোগের কারণে জল খাওয়ার জন্য একটি স্ট্র-র আবেদন করেছিলেন স্ট‍্যান স্বামী। বহুবার আবেদনের পর তা মিলেছিল।

প্রসঙ্গত, গত প্রায় তিন বছর জেলবন্দী থাকার পর সম্প্রতি ছয় মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে মুক্তি পেয়েছেন এই মামলার অপর এক অভিযুক্ত বিশিষ্ট প্রবীণ কবি ভারভারা রাও।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in