Sensex: বিশ্ব বাজারে ভারী পতন, প্রভাব সেনসেক্স, নিফটিতেও

এদিন ইনফোসিস, টিসিএস, টেক মাহিন্দ্রা, এইচসিএল টেকনোলজিস প্রভৃতি শেয়ারের দাম বড় হারে পড়েছে। বিএসই লার্জক্যাপ এর ক্ষেত্রে ০.৩১ শতাংশ, বিএসই মিডক্যাপ ০.১০ শতাংশ এবং বিএসই স্মলক্যাপ ০.০১ শতাংশ কমেছে।
শেয়ার বাজারে ধস
শেয়ার বাজারে ধসপ্রতীকী ছবি সংগৃহীত

বিশ্ব বাজারে ভারী বিক্রির কারণে বুধবার ভারতীয় শেয়ার বাজারে অনেকটাই পতন হয়েছে বলে শেয়ার বাজার বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন।

বুধবার বন্ধের সময়, সেনসেক্স ২২৪.১১ পয়েন্ট বা ০.৩৭ শতাংশ নেমে ৬০,৩৪৬.৯৭ পয়েন্টে এবং নিফটি ৬৬.৩০ পয়েন্ট বা ০.৩৭ শতাংশ কমে ১৮,০০৩.৭৫ পয়েন্টে বন্ধ হয়েছে। এদিন মোট ১,১৭৬টি শেয়ারের দাম কমেছে, ১,৬৯২টি শেয়ারের দাম বেড়েছে এবং ১৪৩টি শেয়ারের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এদিন ইনফোসিস, টিসিএস, টেক মাহিন্দ্রা, এইচসিএল টেকনোলজিস প্রভৃতি শেয়ারের দাম বড় হারে পড়েছে। বিএসই লার্জক্যাপ এর ক্ষেত্রে ০.৩১ শতাংশ, বিএসই মিডক্যাপ ০.১০ শতাংশ এবং বিএসই স্মলক্যাপ ০.০১ শতাংশ কমেছে।

জিওজিৎ ফিনান্সিয়াল সার্ভিসেসের গবেষণা প্রধান বিনোদ নায়ার জানিয়েছেন, "যদিও দেশীয় বাজার খোলার সময় বিশ্ব বাজারে ভারী বিক্রির প্রতিফলন ঘটেছে, তবে এটি খুব ধীরে পুনরুদ্ধার করেছে।

এদিন মেটাল এবং ব্যাঙ্কের সূচকগুলি সবচেয়ে বেশি বেড়েছে, যখন আইটি এবং তেল ও গ্যাস সূচকগুলি সবচেয়ে বেশি হ্রাস পেয়েছে৷ আমেরিকান মুদ্রাস্ফীতি প্রত্যাশার চেয়ে বেশি হওয়ায় বিনিয়োগকারীরা প্রতিক্রিয়া জানানোয় মার্কিন বাজারের বড় পতনের পর বুধবার এশিয়া প্যাসিফিকের বাজারও পড়েছে।

ভারতের পাইকারি মূল্যস্ফীতি গত বছরের সেপ্টেম্বরের পর থেকে সর্বনিম্নে নেমে এসেছে। যা আগস্টে ১২.৪ শতাংশে দাঁড়িয়েছে, যেখানে ২০২২ সালের জুলাই মাসে তা ছিল ১৩.৯ শতাংশ এবং আগস্ট ২০২১-এ ১১.৬৪ শতাংশ ছিল।

কোটাক সিকিউরিটিজ লিমিটেড-এর ইক্যুইটি রিসার্চের প্রধান (রিটেল) শ্রীকান্ত চৌহান জানিয়েছেন, "বুলেদের জন্য, ১৭,৯০০ হবে মূল সাপোর্ট লেভেল, এবং যদি সূচকটি একইভাবে টিকে থাকে তবে এটি ১৮,১০০-১৮,১৫০ স্তরে যেতে পারে। উল্টো দিকে, বিক্রির একটি নতুন ক্ষেত্র দেখা যেতে পারে। যখন শুধুমাত্র ১৭,৯০০ এবং তার নীচে একইভাবে সূচকটি ১৭,৭৫০-১৭,৭০০-র স্তর পুনরায় পরীক্ষা করতে পারে।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in