Monkeypox: কেরালায় মিলল দ্বিতীয় মাঙ্কিপক্স আক্রান্তের হদিশ, চিন্তায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক

আক্রান্ত ব্যক্তি ১৩ জুলাই দুবাই থেকে ফেরেন। তাঁর শরীরে মাঙ্কিপক্সের লক্ষণ থাকায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজিতে নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়, রিপোর্ট পজিটিভ আসে।
মাঙ্কি পক্স
মাঙ্কি পক্সফাইল ছবি, সৌজন্যে - বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ফের এক মাঙ্কিপক্স আক্রান্তের হদিশ মিলল কেরালায়। এই নিয়ে দেশে আপাতত দুজন ব্যক্তির ঐ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা সামনে এসেছে। ঐ ব্যক্তি যে মাঙ্কিপক্সেই আক্রান্ত হয়েছেন তা নিশ্চিত করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

সোমবার এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আক্রান্ত ব্যক্তি ১৩ জুলাই দুবাই থেকে দেশে ফিরেছিলেন। তাঁর শরীরে মাঙ্কিপক্সের লক্ষণ থাকায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজিতে তাঁর নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। নমুনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

৩১ বছর বয়সী আক্রান্ত ওই যুবকের বাড়ি কেরালার কোল্লাম জেলায়। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একটি টিম তৈরি করা হয়েছে বিষয়টি তদারকি করার জন্য। বর্তমানে যুবকটির শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। ওই যুবকের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন, তাঁদেরও পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রক তরফে আরও জানানো হয়েছে, “সরকার সতর্কতার সাথে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। রাজ্যগুলির সাথে সমন্বয় রেখে এই রোগের প্রাদুর্ভাবের যেকোনও রকম সম্ভাবনার ক্ষেত্রে আরও সক্রিয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে”।

এর আগেও কেরলে মাঙ্কি পক্সে আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। তিনিই দেশে প্রথম মাঙ্কি পক্স আক্রান্ত ব্যক্তি। সংযুক্ত আরব আমিরশাহি থেকে ওই ব্যক্তি ফেরেন বলে জানা গিয়েছিল।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-এর মতে, মাঙ্কিপক্স হল ‘ভাইরাল জুনোসিস’, অর্থাৎ যা প্রাণী থেকে মানুষের শরীরে সংক্রামিত হয়। গুটিবসন্তের রোগীদের মধ্যে এই রোগের অনুরূপ লক্ষন দেখা যেত। যদিও তা এই ভাইরাসের চেয়ে কম গুরুতর ও ক্ষতিকর ছিল। ১৯৮০ সালে গুটিবসন্ত নির্মূল হবার পরে গুটিবসন্তের টিকা বন্ধ করা হয়।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in