১৮ মাসের জন্য কৃষি আইন স্থগিত রাখার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, ট্র্যাক্টর র‍্যালির সিদ্ধান্তে অনড় কৃষকরা

AIKS নেতা পি কৃষ্ণপ্রসাদের কথায়, আন্দোলনের শুরু থেকেই কৃষকদের দাবি ছিল নতুন আইন প্রত‍্যাহার করা এবং ফসলের ন‍্যূনতম সহায়ক মূল্যের আইনি গ‍্যারান্টি। সরকার এই‌ বিষয়ে এখনও কোনো প্রতিশ্রুতি দেয়নি।
১৮ মাসের জন্য কৃষি আইন স্থগিত রাখার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, ট্র্যাক্টর র‍্যালির সিদ্ধান্তে অনড় কৃষকরা
কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে কলকাতায় অবস্থান কর্মসূচীতে ডঃ অশোক ধাওয়ালেছবি এআইকেএস ফেসবুক পেজ থেকে সংগৃহীত

আগামী ১৮ মাসের জন্য বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইনের প্রয়োগ স্থগিত রাখার কেন্দ্রের প্রস্তাব প্রত‍্যাখান করার সিদ্ধান্ত নিলেন আন্দোলনরত কৃষকরা। এই 'কালা' আইন পুরোপুরি বাতিলের দাবিতে অনড় রয়েছেন তাঁরা। পাশাপাশি প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন ট্রাক্টর র‍্যালি করার সিদ্ধান্তেও অটল রয়েছেন তাঁরা। বুধবার কৃষকদের সাথে দশম দফার বৈঠকে আইন স্থগিতের প্রস্তাব রেখেছিল কেন্দ্র।

ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন ক্রান্তিকারি সংগঠনের নেতা সুখবিন্দর কৌর জানিয়েছেন, "আইনগুলো ১৮ মাস স্থগিত রাখার সরকারের প্রস্তাব প্রত‍্যাখান করেছি আমরা। প্রজাতন্ত্র দিবসে আউটার রিং রোডে ট্রাক্টর র‍্যালি আমরা করবই।" আগামীকাল সরকারের সাথে একাদশ দফার বৈঠকে কৃষকরা তাঁদের এই সিদ্ধান্তের কথা জানাবেন বলে জানিয়েছেন সুখবিন্দর কৌর।

অল ইন্ডিয়া কিষাণ সভা (AIKS)-এর নেতা পি কৃষ্ণপ্রসাদের কথায়, আন্দোলনের শুরু থেকেই কৃষকদের দাবি ছিল নতুন আইন প্রত‍্যাহার করা এবং ফসলের ন‍্যূনতম সহায়ক মূল্যের আইনি গ‍্যারান্টি। সরকার এই‌ বিষয়ে এখনও কোনো প্রতিশ্রুতি দেয়নি।

গত দু'মাস ধরে লক্ষ লক্ষ কৃষক দিল্লির সীমান্তে আন্দোলন করছেন। আন্দোলনের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত ১৪৩ জন কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। কৃষক নেতা দর্শন পাল জানিয়েছেন, "এঁদের ত‍্যাগ বিফলে যাবে না। কৃষি আইন ‌বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আমরা কেউ বাড়ি ফিরব না।"

অপরদিকে, ২৬ জানুয়ারি কৃষকদের ট্রাক্টর র‍্যালির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্র। বৃহস্পতিবার এনিয়ে দিল্লি পুলিশের সাথে বৈঠকে বসেছিলেন আন্দোলনরত কৃষক নেতারা। পুলিশের পক্ষ থেকে কৃষকদের কুন্ডলি-মানেসর-পালওয়াল এক্সপ্রেসওয়েতে ট্রাক্টর র‍্যালি করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আউটার রিং রোডে শান্তিপূর্ণভাবে র‍্যালি করার সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছেন কৃষকরা। আগামীকাল ফের এনিয়ে দিল্লি পুলিশের সাথে আলোচনায় বসবে কৃষকরা।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in