বাদল অধিবেশনে প্রথম ২ সপ্তাহে রাজ্যসভার ৫০ ঘণ্টা Working Hours -এর ৪০ ঘণ্টাই নষ্ট হয়েছে

এই প্রথম সেক্রেটারিয়েট ডেইলি বুলেটিন প্রকাশ করছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, সভায় কোনও কাজই এগোয়নি।
বাদল অধিবেশনে প্রথম ২ সপ্তাহে রাজ্যসভার ৫০ ঘণ্টা Working Hours -এর ৪০ ঘণ্টাই নষ্ট হয়েছে
সংসদ ভবনফাইল ছবি সংগৃহীত

বাদল অধিবেশন শুরু হওয়ার পর থেকেই রোজই প্রায় বিরোধী হট্টগোলে মুলতুবি হয়ে আসছে সংসদের দুই অধিবেশন। গত ২ সপ্তাহে রাজ্যসভায় মোট ৫০ ঘণ্টার কাজের মধ্যে ভেস্তে গিয়েছে ৪০ ঘণ্টাই। ফলে সংসদে কোনও কাজি প্রায় এগোয়নি বলে মনে করা হচ্ছে। প্রথম সপ্তাহে মোট কাজ হয়েছিল ৩২.২ শতাংশ। দ্বিতীয় সপ্তাহে তা নেমে দাঁড়ায় ১৩,৭ শতাংশে। সভার রেকর্ড থেকেই এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে।

এই প্রথম সেক্রেটারিয়েট ডেইলি বুলেটিন প্রকাশ করছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, সভায় কোনও কাজই এগোয়নি। প্রথম ২ সপ্তাহে ১৩০ ঘণ্টা জিরো আওয়ার পাওয়া গিয়েছে। ৮৭ বার কোনও ইস্যু তুলে ধরার চেষ্টা হলেও তা ব্যর্থ হয়। কাজের মোট ৫০ ঘণ্টার মধ্যে ৩৯.৫২ ঘণ্টা নষ্ট হয়েছে বিরোধীদের হ্‌ইহট্টোগোলের মাঝে।প্রথম ২ সপ্তাহে মোট ৯বার রাজ্যসভা শুরু হলে মাত্র ১.৩৮ ঘণ্টায় প্রশ্নোত্তর পর্ব সম্পন্ন হতে পেরেছে। এই সময়ের মধ্যে ৪ টি বিল পাশ করা হয়েছে রাজ্যসভায়।

রাজ্যসভঅ সেক্রেটারিয়েটের তরফে এক বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু অধিবেশন শুরুর আগে সরকার ও সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতাদের কাছে আবেদন করেছিলেন, সভায় সবরকম আলোচনা হবে।কিন্তু ৫০ ঘণ্টা ওয়ার্কিং আওয়ারের মধ্যে এক মিনিট সময়ও এইসব গুরুত্ব বিষয় নিয়ো আলোচনা হয়নি। প্রথম সপ্তাহে কোভিড ইস্যু নিয়ে ৪.৩৭ ঘণ্টা আলোচনা হয়েছে শুধু। এই সময়ের মধ্যেও আবার পেগাসাস নিয়ে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। সুতরাং, কাজ বলতে তেমন কিছুই আর হয়নি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in