বিইএমএল-এর বেসরকারিকরণের প্রতিবাদ, সংস্থার কর্মীদের অনির্দিষ্টকালের ধর্না ৪১ দিনে

বিইএমএল-এর বেসরকারিকরণের প্রতিবাদ, 
সংস্থার কর্মীদের অনির্দিষ্টকালের ধর্না ৪১ দিনে
পালাক্কাড সিআইটিইউ পেজ থেকে সংগৃহীত

সরকার অধিগৃহীত সংস্থা পালাক্কাডের বিইএমএল-কে বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে কর্মীদের অনির্দিষ্টকালের ধর্না সোমবার ৪১ দিনে পড়ল। কেন্দ্র এই সংস্থার বেসরকারিকরণের সিদ্ধান্ত নিতেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় থাকা সংস্থার শাখার কর্মীরা অনির্দিষ্টকালের ধর্নায় বসেছেন। বেসরকারিকরণের প্রতিবাদ জানিয়ে আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি জেলা জুড়ে গড়া হবে মানব প্রাচীর।

পালাক্কাড ইউনিটের কর্মীরা গত ৬ জানুয়ারি থেকে ধর্নায় সামিল হয়েছেন। জানুয়ারি মাসের ৩ তারিখ একটি স্মারকলিপি দিয়ে সংস্থার তরফে জানানো হয়, দু'টি ধাপে সংস্থার নিলাম ডাকা হবে। ১,৪০০ কোটি টাকার প্রথম নিলাম ডাকা হবে। যার মধ্যে ২৬ শতাংশ ইকুইটি শেয়ার মোট শেয়ারের থেকে বেসরকারিকরণ করা হবে। শুধু সংস্থার কর্মীরাই নয়, ধর্মায় বসেছেন সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষরাও। সেন্ট্রাল ট্রেড ইউনিয়নও এই ধর্নায় সামিল হয়েছে। সঙ্গে চলছে প্রচার। সেন্টার অফ ইন্ডিয়ান ট্রেড ইউনিয়নস ১২ ফেব্রুয়ারি একটি র‍্যালির ব্যবস্থা করে বেসরকারীকরণের প্রতিবাদে জনসচেতনতা প্রচার করে। এই র‍্যালি জেলার বিভিন্ন তালুকে ঘুরে প্রচার করবে।

এই প্রতিবাদসভার মাঝেই একটি জনসভার আয়োজন করা হয় পালাক্কাড কমপ্লেক্সের সামনে। এই সভায় হাজির ছিলেন পালাক্কাডের নির্বাচিত বিধায়ক, জেলা পঞ্চায়েতের সভাপতি, সহ-সভাপতি, বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েত, ব্লক পঞ্চায়েত এবং মিউনিসিপ্যালিটির সদস্যরাও। এই বিষয়টিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অবিলম্বে হস্তক্ষেপ চেয়েছেন রাজ্যসভার সদস্য ইলামরাম করিম।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in